১২ বছর পর নিজস্ব ভবনে দেবিদ্বার পৌরসভা

ঢাকা, শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ১৩ ১৪২৮,   ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

১২ বছর পর নিজস্ব ভবনে দেবিদ্বার পৌরসভা

দেবিদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৪১ ২৪ নভেম্বর ২০২১  

দেবিদ্বার পৌরসভার পুরোনো ভবন

দেবিদ্বার পৌরসভার পুরোনো ভবন

দীর্ঘ ১২ বছর পর নিজস্ব ভবনে ফিরে গেল কুমিল্লার দেবিদ্বার পৌরসভা। বুধবার প্রথমদিন অফিস করেছেন পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এদিন সকালে জরাজীর্ণ দ্বিতল ভবনটি ধোয়া মোছা ও দরজা-জানালাসহ প্রয়োজনীয় মালামাল সংস্কার করতে দেখা গেছে।

দীর্ঘদিন পর নতুন ভবনে ফিরে আসায় খুশি পৌরসভার বাসিন্দরাও। মাহমুদুল হাসান, জসিম উদ্দিনসহ কয়েকজন বলেন, অস্থায়ী কার্যালয়ে গিয়ে জায়গা সংকটসহ নানা দুর্ভোগ পোহাতে হতো। এছাড়া জন্ম নিবন্ধন, কর পরিশোধ করতে গিয়ে প্রচুর ভিড় ঠেলতে হতো। পৌসসভা নিজস্ব ভবনে ফিরে যাওয়ায় মানুষের কষ্ট অনেক কমবে।

পৌরবাসী জানায়, দীর্ঘদিন অযত্ন-অবহেলায় পড়েছিল ভবনটি। স্থানীয়রা ভবন প্রাঙ্গণে গরু-ছাগল লালন-পালন করতো, খড়কুটো স্তুপ করে রাখতো। দীর্ঘদিন কার্যক্রম বন্ধ থাকায় ভবনটি মাদকাসক্ত ও বখাটেদের আখড়ায় পরিণত হয়েছিল। নতুন করে এ ভবনে পৌরসভার কার্যক্রম শুরু হওয়ায় জনগণের অনেক সুবিধা হয়েছে।

দেবিদ্বার পৌরসভার অস্থায়ী কার্যালয়

জানা গেছে, ২০০৩ সালে কুমিল্লার দেবিদ্বার পৌরসভার জন্য গুনাইঘর উত্তর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে প্রায় এক কোটি ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে আধুনিক দ্বিতল ভবন নির্মাণ করা হয়। এরপর টানা পাঁচ বছর সেখানে পৌরসভার চলে। কিন্তু ভবনটি পৌর এলাকার এক প্রান্তে হওয়ায় যাতায়াত সমস্যাসহ নাগরিক সেবায় অসুবিধা হতো।

২০০৯ সালে এ ভবনে তালা ঝুলিয়ে ‘দেবিদ্বার মাজেদা আহসান মুন্সী পৌর গণপাঠাগার’কে অস্থায়ী কার্যালয় বানিয়ে পৌরসভার কার্যক্রম শুরু হয়। এতে পাঠাগারের কার্যক্রম ধীরে ধীরে বন্ধ হয়ে যায়। পাঠাগারের লাখ লাখ টাকার বই লোপাট হতে শুরু করে। বর্তমানে পাঠাগারের নামে নতুন করে সরকারি অনুদানসহ বই আসা বন্ধ রয়েছে। ফলে বইপ্রেমীরা জ্ঞানান্বেষণের একমাত্র পাঠাগারটির কথা ভুলতে বসেছে।

দেবিদ্বার পৌরসভার সচিব মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, পৌরসভা নিজস্ব ভবনে ফিরে আসায় আমাদের কাজে অনেক সুবিধা হয়েছে। নাগরিক সেবার মানও বেড়েছে। আগে ছোট্ট তিনটি রুমে একাধিক কর্মকর্তাকে বসতে হয়েছে। মানুষের চাপও ছিল। এখন মানুষ সহজেই সব কাজ করতে পারবে।

দেবিদ্বারের ইউএনও মো. আশিক উন নবী তালুকদার বলেন, নাগরিক সেবার মান বাড়াতে পৌরসভার নিজস্ব ভবনে কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য বলা হয়েছে। এতে পৌর এলাকায় উন্নয়ন কার্যক্রম আরো গতিশীল হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর