মেম্বার প্রার্থীর ভোট চলে গেল পৌরসভায়

ঢাকা, রোববার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২১ ১৪২৮,   ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

মেম্বার প্রার্থীর ভোট চলে গেল পৌরসভায়

পারভীন আক্তার, সিরাজগঞ্জ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০৬ ২৩ নভেম্বর ২০২১   আপডেট: ২০:৫৫ ২৪ নভেম্বর ২০২১

জেলা সার্ভার স্টেশন, সিরাজগঞ্জ: ফাইল ফটো

জেলা সার্ভার স্টেশন, সিরাজগঞ্জ: ফাইল ফটো

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার খাষকাউলিয়া ইউনিয়নের দুই নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী মোহাম্মদ মোতালেব হোসেনের ভোট এখন টাঙ্গাইল পৌরসভায়। প্রার্থীর অভিযোগ, তাকে না জানিয়ে ভোট স্থানান্তর করা হয়েছে।

এর আগে একই অভিযোগ উঠেছিল বাঘুটিয়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত সদস্য নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থীসহ ছয়জনের।

মোতালেব জানান, চৌহালীর খাষকাউলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ২০১১ সালে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। তার বাবা পশ্চিম খাষকাউলিয়া দক্ষিণ গ্রামের মোজাহার প্রামাণিক। চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে তিনি খাষকাউলিয়া ইউপির ২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র তোলেন।  

রোববার ওই পত্র লিখিতভাবে পূরণের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ও ভোটার তালিকা মিলিয়ে নিতে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে বিপাকে পড়েন মোতালেব। দেখতে পান ভোটার তালিকায় তার নাম নেই। পরে খোঁজ করে দেখেন পাশের জেলা টাঙ্গাইল পৌরসভার সাত নম্বর ওয়ার্ডের ভাল্লুককান্দি মহল্লার ভোটার করা হয়েছে তাকে।

মোতালেব দাবি করে বলেন, কখনো ভোটার স্থানান্তরে কোনো আবেদন করেননি। কিংবা তার কোনো আত্মীয়-স্বজন বা পরিচিত কেউ সেখানকার ভোটার না।  

এবিষয়ে তদন্তের দাবি করে ওই প্রার্থীর কর্মী ফারুক হোসেন জানান, ট্রেজারি চালান দিয়ে ইউপি সদস্য প্রার্থী মোতালেবের জন্য ফরম তোলা হয়েছিল। কিন্তু প্রার্থীর অজান্তেই তার ভোট টাঙ্গাইল পৌরসভায় স্থানান্তর করা হয়েছে। বিগত প্রায় ৯ বছর সুনামের সঙ্গে মোতালেব মেম্বারেরদায়িত্ব পালন করেছেন। এবারো তিনি প্রার্থী হওয়ায় নির্বাচন অফিসের কর্তাদের যোগসাজশে কেউ এ কাজ করে থাকতে পারে।

এর আগেও বাঘুটিয়া ইউনিয়নের ছয়জন ভোটার স্থানান্তর হয়ে যাওয়া পাঁচজন তাদের নিজ এলাকার ভোটার তালিকায় নাম উঠাতে সক্ষম হন। কিন্তু ফরহাদ আলী নামে একজন প্রার্থী তার ভোটার এলাকা স্থানান্তর করতে না পারায় এবার নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি। 

চৌহালী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমাদের কোনো বক্তব্য নেই। আবেদনে প্রেক্ষিতে ভোটার স্থানান্তরিত করা হয়। টাঙ্গাইল নির্বাচন অফিসে যোগাযোগ করুন, বিস্তারিত জানতে পারবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ/আরএম