ইসরাইলের আয়রন ডোমের জন্য এক বিলিয়ন ডলার অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

ঢাকা, সোমবার   ১৮ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৩ ১৪২৮,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ইসরাইলের আয়রন ডোমের জন্য এক বিলিয়ন ডলার অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:১৮ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সম্প্রতি ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ গোষ্ঠী হামাসের সঙ্গে যুদ্ধে বেশ কার্যকারিতা দেখিয়েছে ইসরায়েলের আয়রন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। ফিলিস্তিনিদের ছোড়া একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র সফলভাবে প্রতিহত করেছে সেটি। তবে সেসময় আয়রন ডোমের ফাঁক গলে বেশ কিছু রকেট আঘাত হানে ইসরায়েলে, যার ফলে এ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার কিছু দুর্বলতাও সামনে চলে আসে।

অত্যাধুনিক আয়রন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তৈরিতে যুক্তরাষ্ট্র আগেও সাহায্য করেছে ইসরায়েলকে। এবার সেটির উন্নয়নে বিপুল অংকের অর্থসহায়তার অনুমোদন দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।

সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলের তথ্যানুসারে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদ বৃহস্পতিবার ইসরাইলের আয়রন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার জন্য অতিরিক্ত ১ বিলিয়ন ডলার অনুমোদন করেছে। এটি নিয়ে কিছুদিন ধরে বিতর্ক চললেও অবশেষে তা অনুমোদন পেয়েছে। এদিন আইনপ্রণেতারা ৪২০-৯ ভোটে বিলটি পাস করেন। এর মাধ্যমে আয়রন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের বিষয়টি জোরালো হলো।

বিলটি এবার মার্কিন কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে যাবে। আশা করা হচ্ছে, সিনেটে সহজেই বিলটি পাস হবে। সিনেটে পাস হওয়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বিলে স্বাক্ষর করলে তা পূর্ণাঙ্গ আইনে পরিণত হবে। জো বাইডেন এরইমধ্যে  ইসরায়েলের জন্য এই তহবিল সরবরাহের ব্যাপারে সমর্থন করেছেন।

ইসরায়েলকে সহায়তা করার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক বিতর্ক হচ্ছে। মার্কিন কংগ্রেসের অনেকেই সহায়তার ব্যাপারে বলছেন, ইসরায়েলকে সহায়তা দেয়ার আগে মানবাধিবারের বিষয়ে তাদের অতীত নিয়ে পর্যালোচনা করা উচিত।

ইসরায়েল বছরে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৩.৮ বিলিয়ন ডলারের সামরিক সহায়তা পেয়ে থাকে। তার মধ্যে ৫০০ মিলিয়ন ডলার দেয়া হয় ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার জন্য। ২০১৬ সালে এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ১০ বছর মেয়াদি একটি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেছিলেন।

গত বছর মার্কিন কংগ্রেস আয়রন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার জন্য নির্দিষ্ট করে ৭৩ মিলিয়ন ডলার অনুমোদন করেছিল।

আয়রন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা যেকোনো ধরনের রকেট হামলা প্রতিহত করতে পারে। প্রথম ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি কোম্পানি রাফায়েল এটি উদ্ভাবন করে। তারপর থেকে যুক্তরাষ্ট্র এই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার উন্নতির ব্যাপারে ব্যাপক হারে পৃষ্ঠপোষকতা করছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ