অনলাইন থেকে কেনা সরঞ্জাম ব্যবহারে ‘ই-বেবির’ জন্ম দিলেন নারী

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৭ ১৪২৮,   ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অনলাইন থেকে কেনা সরঞ্জাম ব্যবহারে ‘ই-বেবির’ জন্ম দিলেন নারী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৪০ ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৫:২৪ ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

ছবি: স্টেফানি ও ইডেন

ছবি: স্টেফানি ও ইডেন

ইন্টারনেটের কল্যাণে অনলাইন কেনাকাটা এখন বেশ জনপ্রিয়। জামাকাপড় থেকে শুরু করে কাঁচা বাজার সবই পাওয়া যায় অনলাইনে। তবে এবার এক নারী অনলাইনে কিনলেন শুক্রাণু। ইউটিউব দেখে গর্ভে সেই শুক্রাণু প্রবেশ করানো প্রক্রিয়া শিখেছেন। শেষ পর্যন্ত ১০ মাস পর জন্ম দিয়েছেন কন্যা সন্তান। অবাক করা এই ঘটনা ঘটেছে ইংল্যান্ডে।

৩৩ বছর বয়সী স্টেফানি মেয়ের নাম রেখেছেন ইডেন। তবে তার আশে পাশের মানুষজন নাম দিয়েছেন ‘ই-বেবি’। অনলাইন সংক্রান্ত বিষয় গুলোর সঙ্গে ‘ই’ শব্দটি জুড়ে আছে। ‘ইলেকট্রনিক্স’ থেকেই ‘ই’ শব্দটি সামনে এসেছে। বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম ই-বে থেকে কিনেছেন প্রজনন প্রক্রিয়ার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র।

অনলাইন থেকে কেনা শুক্রাণুর দ্বারা স্টেফানি কন্যা সন্তানের মা হন ইংল্যান্ডের নুন্থরোপের বাসিন্দা স্টেফানি টেইলর নিজেদের দ্বিতীয় সন্তান নিতে যখন আগ্রহী হলেন তখন দেখলেন, স্থানীয় ক্লিনিকগুলোতে বেশ ব্যয় বহুল। তাই বিকল্প পথ খুঁজতে থাকেন তিনি। এক বন্ধুর সাহায্যে একটি অ্যাপের সন্ধান পান তিনি। যেখানে শুক্রাণু অর্ডার করেন। এর পর ই-বে থেকে কিনে নেন সরঞ্জামগুলো। ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি স্টারকে তিনি বলেন, প্রথমবারের চেষ্টাতেই তিনি গর্ভবতী হন। ওই ডোনার তার বাসাতেই শুক্রাণু দিতে হাজির হয়েছিলেন। তার মতে সন্তানটি সত্যিকারের ‘অনলাইন বেবি’ যা ‘বিস্ময়ের’ মতোই।

তার প্রথম সন্তানের বয়স পাঁচ বছর। সাবেক সঙ্গীর সঙ্গে এখন আর সম্পর্ক নেই স্টেফানির। তার চাওয়া ছেলে সন্তান যেন একা বড় না হয়। সেই জন্যই আরেকটি সন্তান নিতে চাচ্ছিলেন। তবে অর্থনৈতিক বিষয়টির বিবেচনায় যা ছিল তার জন্য বেশ কঠিন ছিল। যদি অনলাইনে এমন সার্ভিস না থাকতো তাহলে কখনওই তিনি সন্তানের মা হতে পারতেন না।

স্টেফানির পাঁচ বছরের আরো একটি সন্তান রয়েছে এদিকে স্টেফানির চাওয়া ছিল, বড় সন্তানের মতো যাতে ছোট সন্তানের মিল থাকে। তাই দেখতে অনেকটা তার মতো একজন শুক্রাণু ডোনার খুঁজে নেন তিনি। শারীরিকভাবে যিনি সুস্থ ও গঠনও যাতে তার সঙ্গে মিলে এমনই একজনকে খুঁজে নেন তিনি। শুধু তাই নয় স্বভাবের দিক থেকেও পরিবারমুখী একজন ডোনার খুঁজতেও সফল হন তিনি।’

২০২০ সালের জানুয়ারিতে প্রথমবারের মতো শুক্রাণু দিয়ে যান ওই ডোনরা। অক্টোবারের ১৫ তারিখ প্রায় চার কেজি ওজনের সুস্থ মেয়ে সন্তান প্রসব করেন তিনি। ইডেন বড় হলে ডোনারের সঙ্গে তাকে দেখা করিয়ে দেয়ার ইচ্ছা আছে তার বলে জানান স্টেফানি।

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে/মাহাদী