পাকিস্তানে মার্কিন ঘাঁটি তৈরির অনুমতি দেওয়া হবে না: ইমরান খান

ঢাকা, বুধবার   ২৮ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১৪ ১৪২৮,   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

পাকিস্তানে মার্কিন ঘাঁটি তৈরির অনুমতি দেওয়া হবে না: ইমরান খান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৫৬ ২০ জুন ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পাকিস্তানে মার্কিন সামরিক ঘাঁটি স্থাপনের অনুমতি দেওয়া হবে না বলে স্পষ্টভাবে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। রোববার এইচবিও এক্সিওসের বরাতে এখবর দিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন সংবাদ ওয়েবসাইট এইচবিও অ্যাক্সিওসে সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন ইমরান খান। সেখানে সাংবাদিক জোনাথন সোয়ান তাকে প্রশ্ন করেছিলেন আল কায়দা, আইএস এবং তালেবানদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অংশ হিসেবে যদি যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানে সামরিক ঘাঁটি করতে চায়, সেক্ষেত্রে পাকিস্তান সরকার তার অনুমতি দেবে কিনা।

উত্তরে ইমরান খান বলেন, একদমই নয়। আফগানিস্তানে অভিযান চালানোর জন্য পাকিস্তানের সীমানা ব্যবহার আমরা কখনো সমর্থন করব না। এটা একেবারেই সম্ভব নয়।

এদিকে, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে ইমরানের এই বক্তব্য প্রকাশের পরে তাকে স্বাগত জানিয়েছে আফগানিস্তানের কট্টরপন্থী ইসলামিগোষ্ঠী তালেবান। শুক্রবার কাতারের রাজধানী দোহা থেকে তালেবান মুখপাত্র সোহেল শাহীন এ বিষয়ে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম দ্য ডনকে বলেন, আমরা পাকিস্তানের সরকারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। পাকিস্তানে সামরিক ঘাঁটি স্থাপনের যে প্রস্তাব যুক্তরাষ্ট্র দিয়েছে তা অন্যায্য ছিল এবং পাকিস্তান তার উপযুক্ত জবাব দিয়েছে।

১৯৯৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে টুইন টাওয়ারে হামলার পর থেকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লড়াই ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র। এর অংশ হিসেবে ২০০১ সালে আফগানিস্তানে অভিযান চালানো শুরু করে দেশটির সেনাবাহিনী।

সে সময় আফগানিস্তানের ক্ষমতায় ছিল তালেবান সরকার । অভিযানে তালেবানদের পতন হয়। তবে তার কয়েক বছর পর থেকে ফের শক্তিশালী হওয়া শুরু করে আফগানিস্তানভিত্তিক এই কট্টরপন্থি ইসলামিগোষ্ঠী।

সম্প্রতি দেশটি থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। পাশপাশি, সেখানে স্থায়ী যুদ্ধবিরতি এবং সরকার ব্যবস্থায় তালেবানদের অন্তর্ভুক্তির বিষয় নিয়েও আলোচনা চলছে কাতারের রাজধানী দোহায়। তবে চলমান এই আলোচনার মধ্যেই  চোরাগুপ্তা হামলা ক্রমশ বাড়ছে আফগানিস্তানে। মূলত সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও অধিকারকর্মীদের লক্ষ্য করেই হামলাগুলো করা হচ্ছে। রাজনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, দেশের ওপর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আনতে পরিকল্পিতভাবে এই হামলাগুলো চালাচ্ছে তালেবানগোষ্ঠী।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ