অত্যাচার থেকে বোনকে বাঁচাতে ভগ্নিপতিকে মেরে নদীতে ভাসাল ভাই

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১৪ ১৪২৮,   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

অত্যাচার থেকে বোনকে বাঁচাতে ভগ্নিপতিকে মেরে নদীতে ভাসাল ভাই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৫৭ ১৪ জুন ২০২১  

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

বোনের সংসারে অশান্তি মেটাতে গিয়ে ভাইয়ের হাতে খুন হয়েছেন ভগ্নিপতি। এরপর সেই মরদেহ পার্শ্ববর্তী নদীতে ফেলে দেয়া হয়েছে।

শনিবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গে মালবাজার মহকুমার ওদলাবাড়ি বাবুজোত এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মৃতের নাম রাজকুমার ওরাও (৩৭)। আর অভিযুক্ত ভাইয়ের নাম অনিল ওঁরাও।

মৃতের স্ত্রী বিপ্তি ওরাও (২৭) বলেন, আমার স্বামী, রাজকুমার ওঁরাও প্রতিদিন মদপান করে এসে অশান্তি করতেন। আমাকে ও ছেলেমেয়েকে মারধর করতেন। আমরা খুব অশান্তিতে ছিলাম। শনিবার রাতেও উনি মদ্যপান করে এসে আমাকে এবং মেয়েকে মারধর করেন। আর সহ্য করতে না পেরে আমি আমার ভাই অনিল ওঁরাওকে ডাকি এবং ওকে বোঝাতে বলি।

এরপর ভাই আসেন এবং আমার স্বামীকে অনেক বোঝান। কিন্তু তিনি কোনও ভাবেই বুঝতে চাইছিলেন না। এরপর ভাইয়ের সঙ্গে ওঁর ঝগড়া বাধে। কথায় কথায় ভাই ক্ষিপ্ত হয়ে আমার স্বামীর গলায় গেঞ্জি পেঁচিয়ে ধরেন। এর জেরে আমার স্বামী শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা যান। রাতেই ওঁর দেহ বাড়ির পাশে ঘিস নদীতে ফেলে দেয়া হয়।

এরপর বিপ্তি কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, 'আমার ভাইকে যেন পুলিশ ক্ষমা করে দেয়।'

মালবাজার থানার আই সি সুজিত লামা জানান, মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

এদিন মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য জলপাইগুড়িতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

সূত্র: জি২৪ ঘণ্টা

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী