স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ক, প্রতিশোধ নিতেই প্রেমিকের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নৃশংস হত্যা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৫ জুন ২০২১,   আষাঢ় ১ ১৪২৮,   ০৩ জ্বিলকদ ১৪৪২

স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ক, প্রতিশোধ নিতেই প্রেমিকের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নৃশংস হত্যা

নাটোর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৪৪ ১১ জুন ২০২১   আপডেট: ১৬:৪৩ ১১ জুন ২০২১

মতিউর রহমান

মতিউর রহমান

নাটোরের বড়াইগ্রামে ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা শাহীনুর খাতুনকে গলা কেটে হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। স্বামীর পরকীয়ায় তাকে জীবন দিতে হলো। এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত মতিউর রহমানকে গ্রেফতারের পর বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এসপির কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান এডিশনাল এসপি তারেক যুবায়ের।

নিহত শাহিনুর উপজেলার ভবানীপুর জোলাপাড়া গ্রামের চা দোকানি রাশিদুল ইসলামের স্ত্রী। তিনি তিন সন্তানের মা ছিলেন।

প্রেস ব্রিফিংয়ে এডিশনাল এসপি তারেক যুবায়ের জানান, মতিউরের স্ত্রী আসমা খাতুনকে নিয়ে পালিয়ে যান শাহিনুরের স্বামী রাশিদুল। এমন কাণ্ডে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন মতিউর। তাই প্রতিশোধ নিতে ৩ জুন রাত দেড়টার দিকে নিজের গরুর ঘাসকাটা হাসুয়া নিয়ে রাশিদুলের বাড়িতে যান তিনি। পরে চুপিচুপি শাহিনুরের ঘরে ঢোকেন। এরপর ঘুমন্ত শাহিনুরকে গলা কেটে হত্যা করেন। এছাড়া মৃত্যু নিশ্চিত করতে দুই পায়ের রগ কেটে দেন মতিউর।

এ ঘটনায় ৫ জুন অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে মামলা করেন শাহিনুরের ভাই নূর আলী। হত্যার রহস্য উদঘাটনে প্রথমে শাহিনুরের স্বামী রাশিদুল ও তার প্রেমিকা আসমাকে আটক করে পুলিশ। তাদের দেয়া তথ্যমতে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় বৃহস্পতিবার রাতে নিজ বাড়ি থেকে মতিউরকে গ্রেফতার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মতিউর জানান, নিজের স্ত্রী আসমার সঙ্গে রাশিদুলের অবৈধ সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি তিনি। তাই ঘৃণা ও ক্ষিপ্ত হয়েই শাহিনুরকে হত্যা করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর