মিয়ানমারে সেনা ঘাঁটি দখল করে আগুন ধরিয়ে দিল বিদ্রোহীরা

ঢাকা, শনিবার   ১২ জুন ২০২১,   জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪২৮,   ০১ জ্বিলকদ ১৪৪২

মিয়ানমারে সেনা ঘাঁটি দখল করে আগুন ধরিয়ে দিল বিদ্রোহীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:০৪ ৮ মে ২০২১   আপডেট: ১৮:০৮ ৮ মে ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ওপর চাপ বাড়িয়ে দিয়ে তাদের আরো একটি দখল করে নিয়েছে কারেন বিদ্রোহীরা। এরপর সেটি জ্বালিয়ে দিয়েছে তারা। দুই সপ্তাহ আগে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর একটি ঘাঁটি দখল করে নেয়ার পর ফের হামলা চালালো বিদ্রোহীরা।

শুক্রবার মিয়ানমার-থাইল্যান্ড সীমান্তে সালউইন নদীর কাছে সেনাবাহিনীর একটি ঘাঁটিতে হামলা চালায় বিদ্রোহী সংগঠন ‘কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়ন’ এর সামরিক শাখা ‘কারেন ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি’। কয়েক রাউন্ড গুলি চলার পর প্রায় বিনাযুদ্ধে সেনা শিবিরটি দখল করে জ্বালিয়ে দেয় তারা।

ফেব্রুয়ারি মাসে সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকেই মায়ানমারের পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হয়ে উঠছে। গণতন্ত্রকামীদের প্রবল বিক্ষোভের পর আরও সক্রিয় হয়েছে বিদ্রোহীরা। সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ের ডাক দিয়েছে বেশ কয়েকটি বিদ্রোহী সংগঠন।

মিয়ানমারের কারেন প্রদেশে দীর্ঘদিন ধরেই স্বশাসনের দাবি জোরাল হচ্ছে। গততান্ত্রিক পদ্ধতিতে আং সান সু চির সরকার ক্ষমতায় আসার পর আলোচনার টেবিলে এসেছিল সংগঠনটি। কিন্তু সেনা অভ্যুত্থাননের পর আলোচনা ভেস্তে যায়।

কারেন বিদ্রোহীদের ওপর লাগাতার বিমান হামলা চালাচ্ছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। গত ১লা ফেব্রুয়ারি নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে তারা। শীর্ষ রাজনীতিকদের আটক করা হয়। এরপরই দেশজুড়ে প্রবল বিক্ষোভ শুরু করেছে গণতন্ত্রপন্থীরা। এখন পর্যন্ত নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে প্রায় আট শত বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। গ্রেফতার হয়েছে হাজার হাজার গণতন্ত্রপন্থী। চলমান এই পরিস্থিতিতে দেশটিতে গৃহযুদ্ধের আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা। 

সূত্র: দ্য হিন্দু, সিএনএ

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী