পাবলিক টয়লেটে বসেই মাপা যাবে ক্লান্তির পরিমাণ

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ মে ২০২১,   জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪২৮,   ০৫ শাওয়াল ১৪৪২

পাবলিক টয়লেটে বসেই মাপা যাবে ক্লান্তির পরিমাণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৫০ ১৮ এপ্রিল ২০২১  

ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

সারাদিন টানা কাজের পর ক্লান্ত হয়ে পড়ি আমরা। কিন্তু কতটা ক্লান্ত হলাম তা পরিমাপ করা এতদিন অসম্ভবই ছিল। তবে এই অসম্ভবকে সম্ভব করেছে জাপানের কানাগাওয়া পার্ফেকচার এরিনা সার্ভিস। তাদের তৈরি করা অত্যাধুনিক টয়লেটে পরিমাপ করা যাবে ক্লান্তি, সাথে অবসন্নতাও।

জাপানের সংবাদমাধ্যম সোরা নিউজ এর প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, টোকিও শহর থেকে ৪৫ মিনিট দূরে অবস্থিত এই টয়লেট সহজলভ্য ও ব্যবহার-বান্ধব। ক্লান্তি পরিমাপ করা ছাড়াও, এই পাবলিক টয়লেট বিশ্রাম নেবার জন্যও বেশ উপযোগী। টয়লেটের আশেপাশের খাবার দোকানগুলোও স্বাদবদলের জন্য আদর্শ। সব মিলিয়ে অত্যাধুনিক এই পাবলিক টয়লেট জনসাধারণে বেশ আলোড়ন ফেলেছে।

তবে এই অত্যাধুনিক টয়লেটের কার্যপ্রণালী সম্পর্কে জানা গেছে, বিডেটের সঙ্গে সংযুক্ত একটি টাচস্ক্রিন এমনভাবে তৈরি করা আছে যার সাহায্যে মানুষের ক্লান্তি সহজে পরিমাপ করা যাবে। ক্লান্তি পরিমাপ করার আগে ব্যবহারকারীকে প্রথমে উপযোগী ভাষা নির্বাচন করতে হবে। ক্লান্তি পরিমাপ করতে বিডেটের সঙ্গে যুক্ত সেন্সরের মাত্র এক মিনিট সময় লাগে। সেন্সরটি মূলত মানুষের হৃদস্পন্দনের ওঠা ও নামার ভিত্তিতে ক্লান্তি পরিমাপ করে।

সংস্থাটি থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সেন্সরটি মানুষের হৃদস্পন্দনের ওঠা-নামার হিসেব করে ও নার্ভতন্ত্রের কার্যকলাপ আন্দাজ করে বুঝতে পারে সেই ব্যক্তি ক্লান্ত কি না। দিনের সাথে প্রযুক্তির অনেক উন্নতি হচ্ছে। একুশ শতকে দাঁড়িয়ে প্রযুক্তি কতটা উন্নতি হয়েছে এটিই তার উদাহরণ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ