কিউবায় ইতি ঘটছে কাস্ত্রো পরিবারের ৬ দশকের নেতৃত্বের

ঢাকা, রোববার   ১৬ মে ২০২১,   জ্যৈষ্ঠ ৩ ১৪২৮,   ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

কিউবায় ইতি ঘটছে কাস্ত্রো পরিবারের ৬ দশকের নেতৃত্বের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৫৬ ১৭ এপ্রিল ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

শেষ হচ্ছে কিউবায় কাস্ত্রো পরিবারের ছয় দশকের নেতৃত্ব। শুক্রবার রাউল কাস্ত্রো জানিয়েছেন, কিউবান কমিউনিস্ট পার্টির প্রধান হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে পদত্যাগ করবেন তিনি। ১৯৫৯ সালে বিপ্লবের মাধ্যমে দেশটির ক্ষমতায় আসেন তার ভাই ফিদেল কাস্ত্রো।

৮৯ বছর বয়সী রাউল কাস্ত্রো রাজধানী হাভানায় এক পার্টি সম্মেলনে জানান, তিনি ‘সম্পূর্ণ উৎসাহ ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী চেতনা’ নিয়ে তরুণ প্রজন্মের কাছে কিউবার নেতৃত্ব হস্তান্তর করতে চান।

নেতৃত্ব ছাড়ার বিষয়ে তিনি আরো বলেন, ‘না, না, এই সিদ্ধান্ত নিতে কেউ আমাকে জোর করেনি। যতদিন আমি বাঁচি, স্বদেশকে রক্ষা করার জন্য আমি নিজের পায়ে প্রস্তুত থাকব। বিপ্লব এবং সমাজতন্ত্র আগের চেয়ে আরো বেশি শক্তিশালী এখন।

রাউল কাস্ত্রোর পদত্যাগের মাধ্যমে শেষ হচ্ছে একটি ঐতিহাসিক অধ্যায়ের। ১৯৫৯ সালের পর এই প্রথমবার কাস্ত্রো পরিবারের বাইরের কেউ কিউবায় নেতৃত্ব দিতে চলেছেন।

জানা গেছে, ১৯৫৯ সালে কমিউনিস্ট বিপ্লবের মাধ্যমে কিউবার তৎকালীন সরকার উৎখাতে নেতৃত্ব দেন ফিদেল কাস্ত্রো। এতে তার কমান্ডার হিসেবে ছিলেন ছোট ভাই রাউল কাস্ত্রো। ২০০৬ সালে ফিদেল কাস্ত্রো অসুস্থ হওয়ার আগপর্যন্ত দেশের সর্বোচ্চ নেতার দায়িত্ব সামলেছেন। ২০০৮ সালে তিনি নেতৃত্ব তুলে দেন রাউলের হাতে। ২০১৬ সালে মারা যান কিউবার ঐতিহাসিক এ বিপ্লবী নেতা।

নেতা হিসেবে রাউলও কিউবায় একদলীয় শাসন কায়েম রেখেছেন। তার আমলেই ২০১৪ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কের বেশ উন্নতি হয়েছিল দ্বীপটির। এর মধ্যে ২০১৬ সালে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে রাউলের ঐতিহাসিক একটি বৈঠকও হয়েছিল। তবে ২০১৭ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতালাভের পর ফের সম্পর্কের অবনতি হয় দুই দেশের। এসময় কিউবার ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মার্কিন প্রশাসন।

যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ট্রাম্পের কিছু নিষেধাজ্ঞা শিথিলের ঘোষণা দিয়েছেন। অবশ্য হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, কিউবা নীতির পরিবর্তন তাদের অগ্রাধিকার তালিকাতে নেই।

সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে জানা গেছে, রাউল এখনো তার উত্তরসূরীর নাম ঘোষণা করেননি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, দেশশাসনের ভার পেতে চলেছেন মিগুয়েল ডিয়াজ-কানেল। তিনি ২০১৮ সাল থেকে কিউবার প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্বপালন করছেন। চার দিনব্যাপী দলীয় কংগ্রেসে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত হবেন কাস্ত্রো-পরবর্তী যুগে কিউবার প্রথম শীর্ষ নেতা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ