সুয়েজ খাল বন্ধ থাকায় প্রতি ঘণ্টায় ক্ষতি ৪০ কোটি ডলার

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৩ আগস্ট ২০২১,   শ্রাবণ ১৯ ১৪২৮,   ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

সুয়েজ খাল বন্ধ থাকায় প্রতি ঘণ্টায় ক্ষতি ৪০ কোটি ডলার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:২৭ ২৭ মার্চ ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মিশরের বিখ্যাত সুয়েজ খালে মালবাহী জাহাজ ‘এভার গিভেন’ আটকে যাওয়ায় প্রতিদিন ৯৬০ কোটি ডলার পণ্যের পরিবহন আটকে আছে। এর ফলে প্রতি ঘণ্টায় ক্ষতি হচ্ছে ৪০ কোটি ডলার। পণ্য পরিবহন বিষয়ক জার্নাল লয়েড’স লিস্টে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আন্তর্জাতিক পণ্য পরিবহনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পথ লোহিত সাগর ও ভূমধ্যসাগরকে সংযুক্ত করেছে সুয়েজ খাল। লয়েড’স লিস্ট জানায়, এই খালের পশ্চিম দিক দিয়ে প্রতিদিন গড়ে ৫১০ কোটি ডলার ও পূর্ব দিক দিয়ে প্রতিদিন ৪৫০ কোটি ডলারের পণ্য পরিবহন করা হয়।

মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) জাহাজটি সুয়েজ খালের তলানির সঙ্গে আটকে যায়। জাহাজটি সুয়েজ খালের মাঝ বরাবর আটকে যাওয়ায় দুদিক থেকে আর কোনো জাহাজ চলাচল করতে পারছে না। এটি ছাড়ানো জন্য চেষ্টা অব্যাহত থাকলেও এতে কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত লেগে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তাইওয়ানের কোম্পানি এভারগ্রিন মেরিন জাহাজটি পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে। এর দৈর্ঘ্য পাঁচটি ফুটবল মাঠের সমান যা বিশ্বের সবচেয়ে বড় মালবাহী জাহাজের একটি। দুই লাখ টনের এই জাহাজে একসঙ্গে ২০ হাজার কন্টেইনার পরিবহন করা যায়।

সুয়েজ খালের মধ্য দিয়ে বিশ্বের মোট বাণিজ্যের ১২ শতাংশ পণ্য পরিবাহিত হয়। লয়েড’স লিস্ট জানায়, জাহাজটির দুই দিকে ১৬০টিরও বেশি জাহাজ আটকে আছে। এর মধ্যে ৪১টি মালবাহী ও ২৪টি তেলবাহী জাহাজ রয়েছে। এসব মালবাহী জাহাজে যেসব পণ্য রয়েছে তার মধ্যে আছে কাপড়, আসবাবপত্র, উৎপাদনের উপকরণ ও গাড়ির যন্ত্রাংশ।

পানামায় নিবন্ধনকৃত ‘এভার গিভেন’ জাহাজটি চীন থেকে নেদারল্যান্ডে পণ্য পরিবহন করছিল। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ৭:৪০ মিনিটের দিকে এটি আটকা পড়ে।

এভারগ্রিন মেরিন জানিয়েছে, ধারণা করা হচ্ছে, জাহাজটি হঠাৎ প্রবল বাতাসের কবলে পড়ার কারণে বিচ্যুত হয়ে যায় এবং দুর্ঘটনাবসত জাহাজের তলা আঘাতপ্রাপ্ত হয়। তখন এটি খালের তলানির সঙ্গে আটকে যায়।

সূত্র: বিবিসি

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী