স্ত্রী কারো সম্পত্তি নয়, ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের রায়

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১,   চৈত্র ৩০ ১৪২৭,   ২৯ শা'বান ১৪৪২

স্ত্রী কারো সম্পত্তি নয়, ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের রায়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:০৫ ৪ মার্চ ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

স্বামীর সঙ্গে থাকতে না চাইলে, স্ত্রীকে জোর করে আটকে রাখা যাবে না। কারণ বৈবাহিক সম্পর্কে স্ত্রী কখনো স্বামীর সম্পত্তি নয়। বুধবার এই রায় দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। স্বামীর সঙ্গে থাকতে চান না স্ত্রী। তবে স্বামী চান একসঙ্গে থাকতে।

এই পরিস্থিতিতে বিদ্যমান সমস্যা মেটাতে আইনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন স্বামী। তবে আদালত সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে, স্ত্রীরা স্বামীর সম্পত্তি নয় যে অনিচ্ছা সত্ত্বেও তাকে স্বামীর সঙ্গে থাকতে হবে। উল্টো স্ত্রীকে বৈবাহিক সম্পর্কে বাধ্য করার আর্জি করায় স্বামীকে ভর্ৎসনা করেছেন আদালত।

২০১৫ সালের একটি মামলার প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্ট এই রায় দিয়েছে। যদিও মামলাটি সুপ্রিম কোর্টে ওঠার আগে উত্তরপ্রদেশের একটি পারিবারিক আদালত এবং এলাহাবাদ হাইকোর্টে উঠেছিল। স্বামীর বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ এনে আলাদা থাকতে শুরু করেছিলেন স্ত্রী। তবে আর্থিক অসঙ্গতির কথা উল্লেখ করে স্বামীর কাছ থেকে প্রতি মাসে ২০ হাজার রুপি ভরণপোষণ দাবি করে ওই স্ত্রী। তাতেই সমস্যা বাঁধে। তারপরই গোরক্ষপুরের একটি পারিবারিক আদালতের দ্বারস্থ হয় এই দম্পতি। ২০১৯ সালে সেই আদালত স্বামীর পক্ষে রায় দেয়। সেই রায়ের বিরুদ্ধে এলাহাবাদ হাইকোর্টে মামলা করেন স্ত্রী।

আদালতে ওই নারী বলেন, যৌতুকের টাকার জন্য তাকে নিয়মিত নির্যাতন করতেন স্বামী। তাই তিনি আর তার স্বামীর সঙ্গে থাকতে চান না। তবে যেহেতু তিনি আর্থিক সংস্থানে অপারগ, তাই স্বামীর কাছ থেকে খোরপোশ পাওয়ার অধিকার আছে তার।

স্বামীর কাছে খোরপোশ চাওয়ার পর ওই ব্যক্তি তার স্ত্রীকে তার সঙ্গে থাকতে বলেন। তবে আদালতকে ওই নারী জানান, এ সবই আসলে তার স্বামীর অজুহাত। খোরপোশের টাকা দেবেন না বলেই তাকে নিজের সঙ্গে থাকতে বলছেন স্বামী।

এলাহাবাদ হাইকোর্ট স্ত্রীর পক্ষে রায় দেন। এরপর সুপ্রিম কোর্টে যান স্বামী। বুধবার সুপ্রিম কোর্টও স্ত্রীর পক্ষেই রায় দেন। এসময় সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি সঞ্জয়কিষাণ কউল এবং বিচারপতি হেমন্ত গুপ্তর বেঞ্চ বলে, নারীরা কি সম্পত্তি নাকি? একজন নারী কি স্বামীর সম্পত্তি যে তিনি যেতে না চাইলেও তাকে জিনিসপত্রের মতো স্বামীর ঘরে পাঠিয়ে দেয়া হবে?

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ