ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার: এরদোগান

ঢাকা, শনিবার   ২৮ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৭,   ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার: এরদোগান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪৮ ২৫ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৯:২২ ২৫ অক্টোবর ২০২০

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান এবং ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রোঁ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান এবং ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রোঁ

ইসলাম ধর্ম ও মুসলিমদের প্রতি ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রোঁর আচরণের কঠোর সমালোচনা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। ইসলামের প্রতি এই দৃষ্টিভঙ্গির জন্য ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিত্সা দরকার বলেও মন্তব্য করেছেন এরদোগান।

চলতি মাসের শুরুতে ধর্মনিরপেক্ষ মূল্যবোধের সুরক্ষা নিশ্চিত ও কট্টরপন্থী ইসলামের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের পক্ষে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ম্যাক্রোঁ। এই বিচ্ছিন্নতাবাদ ফ্রান্সের মুসলিম সম্প্রদায়গুলোতে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে চাইছে বলেও জানান তিনি।

ম্যাক্রোঁর এসব মন্তব্যের প্রতি তীব্র তিরস্কার জানিয়েছেন এরদোগান। এদিকে, ম্যাক্রোঁকে উদ্দেশ্য করে বিরুপ মন্তব্য করায় ফ্রান্সে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূতকে তলব করা হয়েছে। এরদোগানের এই মন্তব্যকে অগ্রহণযোগ্য বলে উল্লেখ করেছে ফ্রান্স।

শনিবার তুরস্কের কেন্দ্রীয় শহর কায়সারিতে তার ন্যায়বিচার ও উন্নয়ন (একে) পার্টির একটি প্রাদেশিক কংগ্রেসে বক্তৃতা দেয়ার সময় এরদোগান বলেন, মুসলিম ও ইসলাম নিয়ে প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁর আসলে সমস্যা কি ? তার মানসিক চিকিত্সা করা দরকার। এমন একজন রাষ্ট্রপ্রধানকে কি বলা যেতে পারে, যে বিশ্বাসের স্বাধীনতা বোঝে না। তার দেশে বসবাসকারী কয়েক মিলিয়ন মানুষ যারা ভিন্ন ধর্মে বিশ্বাস করে তাদের সঙ্গে এভাবে আচরণ করাকে কি বলা যেতে পারে? সবার আগে ম্যাক্রোঁর মানসিক পরীক্ষা করা উচিত।

ফরাসি প্রেসিডেন্টের এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, প্রেসিডেন্ট এরদোগানের এই মন্তব্য অগ্রহণযোগ্য। কথা বলার জন্য অতিরিক্ত ও অভদ্রতা কোনো পদ্ধতি নয়। আমরা দাবি করছি যে, এরদোগান তার এই নীতি অনুসরণ করা বন্ধ করবেন কারণ এটি প্রতিটি ক্ষেত্রেই বিপজ্জনক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, প্যারিসের বাইরে ফরাসি শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটির শিরশ্ছেদ করার পর তুরস্কের প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে কোনো শোক ও সমর্থনের বার্তা পায়নি ফ্রান্স।

সম্প্রতি মতপ্রকাশের স্বাধীনতার ক্লাসে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) এর কার্টুন প্রদর্শনের কারণে দেশটির এক ইতিহাসের শিক্ষকের শিরশ্ছেদ করে তাকে হত্যা করেছে চেচেন বংশোদ্ভূত এক কিশোর। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশটিতে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।

হত্যাকাণ্ডের তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানিয়েছে, শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি তার ক্লাসে শিক্ষার্থীদের হযরত মোহাম্মদের (সা.) কার্টুন দেখিয়েছিলেন। ওই ঘটনার পর ইসলামিক বিচ্ছিন্নতাবাদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ম্যাক্রোঁ।

তিনি বলেন, এই বিচ্ছিন্নতাবাদ ফ্রান্সের মুসলমান সম্প্রদায়গুলোতে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে চাইছে। ফ্রান্সের সরকারি ভবনে মহানবীকে (সা.) ব্যঙ্গ করে চিত্র প্রদর্শন বন্ধ হবে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁর এই মন্তব্যের পর গত ৬ অক্টোবর তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, ম্যাক্রোঁর ইসলামপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদ সম্পর্কে এই মন্তব্যগুলো স্পষ্টভাবে উস্কানিমূলক।

সূত্র- আল জাজিরা

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএমএফ