প্রবাসী শ্রমিক সংখ্যা কমাতে কুয়েতের পার্লামেন্টে আইন পাস

ঢাকা, বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৭,   ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

প্রবাসী শ্রমিক সংখ্যা কমাতে কুয়েতের পার্লামেন্টে আইন পাস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪৩ ২১ অক্টোবর ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রবাসী শ্রমিকদের সংখ্যা কমিয়ে আনতে দীর্ঘদিন ধরেই আলোচনা চলছিলো কুয়েতে। এবার সর্বসম্মতিক্রমে সরকারকে তার প্রবাসী শ্রমিকদের সংখ্যা কমানোর জন্য এক বছর সময় দেয়ার আইন পাস করেছে দেশটির পার্লামেন্ট। এটি এমন একটি পদক্ষেপ যা লাখো বিদেশী বাসিন্দাকে কুয়েত ত্যাগ করতে বাধ্য করবে।

মঙ্গলবার ব্লুমবার্গের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অভিবাসী শ্রমিকদের ওপর নির্ভরশীল মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম কুয়েত। তেল সম্পদে সমৃদ্ধ এই দেশটির বর্তমান জনসংখ্যা ৪ দশমিক ৮ মিলিয়ন। এদের মধ্যে দক্ষ ও অদক্ষ প্রবাসী শ্রমিকের সংখ্যাই প্রায় ৩ দশমিক ৪ মিলিয়ন।

কুয়েতে তেলনির্ভর অর্থনীতির গতিশীলতা ধরে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আসছে প্রবাসী শ্রমিকরা। তবে সম্প্রতি বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে তেলের দাম কমে যাওয়ায় দেশটির অর্থনীতিতে ধস নেমেছে। তাই অর্থনীতিকে সক্রিয় রাখতে ও দেশে প্রবাসীদের সংখ্যায় ভারসাম্য আনতেই নতুন এই আইন পাস করলো দেশটি। শ্রমিকদের সংখ্যা কমাতে এই আইনটি ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন সংস্কার ও পদ্ধতি মাধ্যমে প্রয়োগ করা হবে।

আর্থিক প্রভাবের ফলে প্রবাসীদের সংখ্যা কমিয়ে কুয়েতি নাগরিকদের জন্য আরো বেশি কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার দাবি জানানো হয় সরকারের কাছে।

এর আগে, গত জুন মাসেই কুয়েতের প্রধানমন্ত্রী শেখ সাবাহ আল খালিদ আল সাবাহ দেশে অবস্থানরত প্রবাসীর সংখ্যা ৭০ শতাংশ থেকে ৩০ শতাংশে নামিয়ে আনার ঘোষণা দেন। ওই সময় তেল খাতে অভিবাসী শ্রমিক নেয়া বন্ধেরও ঘোষণা দেয়া হয়।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়, নতুন আইন অনুযায়ী কুয়েতে ভারতীয় অভিবাসীর সংখ্যা ১৫ শতাংশের বেশি ও মিসর, ফিলিপাইন এবং শ্রীলংকার প্রবাসীর সংখ্যা ১০ শতাংশের বেশি হতে পারবে না। এছাড়া বাংলাদেশ, পাকিস্তান, নেপাল ও ভিয়েতনামের প্রবাসীর সংখ্যাও ৫ শতাংশের ওপরে যেতে পারবে না।

সূত্র- মিডল ইস্ট আই

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএমএফ