পর্বতারোহী ছাগল, প্রতিদিন চড়ে ১৩ হাজার ফুট

ঢাকা, শুক্রবার   ৩০ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৬ ১৪২৭,   ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

পর্বতারোহী ছাগল, প্রতিদিন চড়ে ১৩ হাজার ফুট

মজার খবর ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:১৫ ১০ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৪:১৬ ১০ অক্টোবর ২০২০

ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

দেখতে আর পাঁচটা সাধারণ ছাগলের মতোই। তবে কোনো সাধারণ ছাগল নয় এটি। অত্যন্ত প্রতিকূল পরিবেশেও টিকে থাকতে পারে ভিন্ন এই প্রজাতির ছাগল। খাবারের খোঁজে প্রতিদিন প্রায় ১৩ হাজার ফুট উঁচু পাহাড়ে অবলীলায় চড়ে যায় এই ছাগল।

খাবারের খোঁজে যেভাবে খাড়া ঢাল বেয়ে পাহাড়ের হাজার হাজার ফুট উঁচুতে চড়ে যায় এই মাউন্টেন গোট তা তুখোড় পর্বোতারোহীদেরও রীতিমতো অবাক করেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জী নিউজ’র এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ছাগলের এই প্রজাতিটির নাম মাউন্টেন গোট। প্রধানত উত্তর আমেরিকার পার্বত্য এলাকায় এই প্রজাতির ছাগলের দেখা মেলে। তবে পার্বত্য হিমালয় এবং রুক্ষ আফগানিস্তানেও দেখা মেলে মাউন্টেন গোটের। আকার, আয়তনে মাউন্টেন গোট গ্রাম বাংলার পথে-ঘাটে ঘুরে বেড়ানো ছাগলের চেয়ে বেশ খানিকটাই বড়। সদ্যোজাত মাউন্টেন গোটের ওজনও প্রায় ৩ কেজি হয়।

খাবারের খোঁজে খাড়া ঢাল বেয়ে পাহাড়ে উঠছে মাউন্টেন গোট

জন্মের ৪-৫ ঘণ্টার মধ্যেই পাহাড়ে চড়ার চেষ্টা শুরু করে দেয় একটি মাউন্টেন গোট। এই প্রজাতির ছাগলের ওজন ৪৫ কেজি থেকে ১৪০ কেজি পর্যন্ত হয়। অত্যন্ত প্রতিকূল আবহাওয়ায় টিকে থাকার জন্য মাউন্টেন গোটের শরীর পুরু পশমে ঢাকা থাকে। মাইনাস ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাই হোক বা ১৬০ কিমি প্রতি ঘণ্টা গতিবেগের ঝড়ো হাওয়ার ধাক্কা এসব ঝড়-ঝাপটা সামলেও টিকে থাকতে পারে এই মাউন্টেন গোট। এরা সাধারণত ১২ থেকে ১৫ বছর বাঁচে। তবে এদের বেশির ভাগেরই মৃত্যু হয় দুর্ঘটনায়।

বয়সে ৩০ মাসে পৌঁছলেই একটি মাউন্টেন গোট প্রজননে সক্ষম হয়। মোটামুটি অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত চলে এদের প্রজননকাল। প্রজননের সময় পার হলেই পুরুষ আর মেয়ে মাউন্টেন গোট আলাদা আলাদা দলে বিভক্ত হয়ে যায়।

একটি পূর্ণ বয়স্ক মাউন্টেন গোটের শরীর থেকে বছরে প্রায় ৪০ কেজি উল পাওয়া যায়। তবে উলের প্রয়োজনে মাউন্টেন গোটের চাষ করা সম্ভব নয়। কারণ, এরা একেবারেই পোষ মানে না। তাই উলের যোগানের জন্য বাণিজ্যিক ভাবে এদের কাজেও লাগানো যায় না।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ