স্বামীকে কাঁচের ঘরে বন্দি রেখে শপিংয়ে যান নারীরা  

ঢাকা, শনিবার   ১৯ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৭ ১৪২৮,   ০৭ জ্বিলকদ ১৪৪২

স্বামীকে কাঁচের ঘরে বন্দি রেখে শপিংয়ে যান নারীরা  

মজার খবর ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩১ ২৭ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৬:০৬ ২৭ আগস্ট ২০২০

ছবি: কাঁচের বাক্সে স্বামীকে জমা রেখে শপিংয়ে যান সাংহাইয়ের নারীরা

ছবি: কাঁচের বাক্সে স্বামীকে জমা রেখে শপিংয়ে যান সাংহাইয়ের নারীরা

যতই দিন যাচ্ছে ততই মানুষ বের করছে অভিনব সব পন্থা। কাজের সুবিধার জন্যই এর প্রয়োজনীয়তা এবং ব্যবহার বাড়ছে। তেমনই এক নতুন সার্ভিস চালু করেছে চীন। সেবার নাম স্বামী জমা রাখার সার্ভিস। নিশ্চয় ভাবছেন বিষয়টা কি? যদিও এমন অদ্ভূত অনেক কিছুই রয়েছে বিশ্বের নানা প্রান্তে।

তবে চীনেই বোধ হয় প্রথম এমন সেবা চালু করেছে। সাধারণত নারীরা কেনাকাটা করতে যাওয়ার সময় তাদের স্বামীদের সঙ্গে নেন। অনেকটা বাধ্য হয়েই স্ত্রীর কেনাকাটার সঙ্গী হন তারা। এরপর স্ত্রীর পেছন পেছন এক দোকান থেকে অন্য দোকানে ঘুরতে হয়। একদিকে সময় নষ্ট হয় অন্যদিকে হাঁটার কষ্ট। এর কোনোটাই যাতে আর করতে না হয়, এ জন্য নতুন একটা উদ্যোগ নিয়েছে চীনের একটি শপিংমল। এই শপিংমলে যেসব নারীরা শপিং করতে আসবেন, তারা চাইলে তাদের স্বামীকে জমা রাখতে পারবেন বিশেষ একটি জায়গায়!     
 
চীনের সাংহাই এর গ্লোবাল হার্বার মলে বেশ কিছু গ্লাস পড বা কাঁচের ঘর রয়েছে। এসব কাঁচের ঘরে স্বামীদের জন্য রয়েছে নানা বিনোদনের ব্যবস্থাও। সেখানে তারা বসে বসে গেম খেলতে পারবেন। প্রতিটি কাঁচের ঘরের ভেতরে থাকবে একটি চেয়ার, মনিটর, কম্পিউটার এবং গেম প্যাড। সেখানে নব্বই দশকের পুরোনো গেমগুলোও রয়েছে। শুরুতেই সার্ভিস ফ্রি হলেও এখন কিছুটা খরচ গুনতে হয়, তবে সেটা খুবই সামান্য। এর পরিবর্তে পুরুষদের কাটছে সুন্দর কিছু সময়। পুরুষরাও ব্যাপারটি বেশ পছন্দ করেছেন।      

এটি শুরু হয় ২০১৮ সালের শেষ দিকে। সেসময় চীনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোড়নও সৃষ্টি করে এই সেবা ব্যবস্থা। অবশ্য শপিং মলটির এই সার্ভিস নিয়ে রস কৌতুকও হয়েছে অনেক। বর্তমানে চীনের অনেক শপিং মলেই এই ব্যবস্থা রয়েছে। স্বামী জমা রাখার ব্যবস্থা নিয়ে পুরুষরা উৎসাহিত হলেও নারীরা বেশ হতাশ। তারা মনে করছেন স্বামীরা যদি বসে গেমই খেলবে তাহলে শপিং মলে তাদের নিয়ে কি লাভ?

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে