জমির আরএস খতিয়ান পাবেন অনলাইনে, মাত্র ৫ মিনিটে

ঢাকা, শনিবার   ২৩ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ১০ ১৪২৭,   ০৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জমির আরএস খতিয়ান পাবেন অনলাইনে, মাত্র ৫ মিনিটে

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৪৬ ৩০ নভেম্বর ২০২০  

জমির আরএস খতিয়ান পাবেন অনলাইনে, মাত্র ৫ মিনিটে

জমির আরএস খতিয়ান পাবেন অনলাইনে, মাত্র ৫ মিনিটে

জমির মালিকদের জন্য আরএস খতিয়ান একটি গুরুত্বপূর্ণ দলিল। এর সাহায্যে জমি পরিমাপ বা চিহ্নিত করা হয়। যারা জমির এই আরএস খতিয়ান হারিয়ে ফেলেছেন অথবা যাদের জমির আরএস খতিয়ান নেই তারা পাঁচ মিনিটের মধ্যেই অনলাইনে পাবেন জমির এই গুরুত্বপূর্ণ দলিল।

আসুন জেনে নেই মাত্র পাঁচ মিনিটেই যেভাবে অনলাইনে পাবেন জমির আরএস খতিয়ান।

ভূমির পরিমাপ পদ্ধতি সঠিক এবং সহজ করার জন্য ফরাসি বিজ্ঞানী এডমন্ড গান্টা ইস্পাত দ্বারা এক ধরনের শিকল আবিষ্কার করেন। পরবর্তীতে তার নাম অনুসারেই এই শিকলের নামকরণ করা হয় গান্টার শিকল। আমাদের দেশে গান্টার শিকল দ্বারা জমি জরিপ অত্যন্ত জনপ্রিয়।

‘আরএস খতিয়ান’ অ্যাপ্লিকেশনটি মূলত ‘জমি’ নামক জাতীয় ভূমি-তথ্য ও সেবা অনলাইন প্ল্যাটফর্মের (www.land.gov.bd) একটি অংশ।

এ ছাড়া মোবাইল অ্যাপ, ‘rsk.land.gov.bd’ এবং ‘drroffice.land.gov.bd’ ওয়েবসাইটের মাধ্যমেও বাংলাদেশের যে কোনো নাগরিক ঘরে বসে অথবা নিকটস্থ যে কোনো ডিজিটাল সেন্টারে অথবা পৃথিবীর যে কোনো প্রান্ত থেকে নিজের জমিসংক্রান্ত তথ্য দেখার সুযোগ পাবেন।

অনলাইনে খতিয়ান সংগ্রহের জন্য নির্ধারিত বিভাগ, জেলা, উপজেলা ও মৌজা বাছাই করতে হবে। খতিয়ান নম্বর বা দাগ নম্বর বা মালিকানা নাম বা পিতা বা স্বামীর নাম দিয়ে খতিয়ান খোঁজা যাবে।

এ ছাড়া খতিয়ানের সার্টিফায়েড কপির জন্য অনলাইনে আবেদন, আবেদন নিষ্পত্তি বিষয়ে ট্র্যাকিং ও কর্তৃপক্ষ কর্তৃক মনিটরিং করার সুবিধা রয়েছে এই অনলাইন ব্যবস্থায়।

অনলাইনে খতিয়ানের কপি পেতে অনলাইনে আবেদনের সময় নাগরিকের নাম, পরিচয়পত্র নম্বর (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) ও ফোন নম্বর ইত্যাদি তথ্য দিতে হবে। নির্ধারিত তথ্য দেয়ার পর মোবাইল ব্যাংকিং বা অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে খতিয়ানের জন্য নির্ধারিত ফি দিতে হবে। ফি পরিশোধের পর অনলাইন কপি সংগ্রহ করতে চাইলে সরাসরি অনলাইন কপি প্রিন্ট করে নেয়া যাবে।

সার্টিফায়েড কপি পাওয়ার ক্ষেত্রে আবেদনের সময় নাগরিকের নাম, পরিচয়পত্র নম্বর, ফোন নম্বর দিতে হবে। তথ্য প্রদানের পর মোবাইল ব্যাংকিং বা অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে খতিয়ানের জন্য ফি দিতে হবে। ফি দেয়ার পর সার্টিফাইড কপির জন্য নাম, জাতীয় পরিচয়পত্র, ইমেইল, মোবাইল নম্বর, ট্রানজেকশন আইডি ও ডাকযোগে যোগাযোগের ঠিকানা দিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। এরপর সংশ্লিষ্ট জেলা অফিস থেকে বা আবেদনকারীর প্রত্যাশিত ঠিকানায় ডাকযোগে নির্দিষ্ট দিনের মধ্যে আরএস খতিয়ানের সার্টিফায়েড কপি সরবরাহ করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস

শিরোনাম

Bullet২৭ জানুয়ারি করোনার ভ্যাকসিন প্রয়োগের উদ্বোধন Bulletমুজিববর্ষের উপহার পেলো ৭০ হাজার গৃহহীন পরিবার Bulletচুক্তি অনুযায়ী শিগগিরই করোনার ভ্যাকসিন ‘কোভিশিল্ড’ পাচ্ছে বাংলাদেশ Bulletআজ ৭০ হাজার গৃহহীন পরিবার পাচ্ছেন পাকা বাড়ি Bulletকরোনায় আক্রান্ত জিদান Bulletসিরিজ জয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন Bulletক্যারিবীয়দের বিপক্ষে টাইগারদের হ্যাটট্রিক সিরিজ জয় Bulletসিরিজ জয়ে টাইগারদের লক্ষ্য ১৪৯ রান Bulletমাতারবাড়ীতে বেলুনের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নিহত ৩ Bulletবঙ্গবন্ধু সেতু এলাকায় ৪০ কিলোমিটার যানজট Bulletঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের সব ফ্লাইট বাতিল Bulletঅবশেষে ফেব্রুয়ারিতে খুলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান Bulletবিশ্বে করোনায় মৃত্যু ২১ লাখ ছাড়ালো Bulletঅর্ধশতকের আগেই ৪ উইকেট হারালো ক্যারবীয়রা