লবণ-চিনি যে পদ্ধতিতে সেবন করলে পাঁচ মিনিটেই ঘুম হবে গভীর

ঢাকা, রোববার   ০৯ মে ২০২১,   বৈশাখ ২৬ ১৪২৮,   ২৬ রমজান ১৪৪২

লবণ-চিনি যে পদ্ধতিতে সেবন করলে পাঁচ মিনিটেই ঘুম হবে গভীর

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:০৬ ৪ মে ২০২১  

গভীর ঘুম। ছবি: সংগৃহীত

গভীর ঘুম। ছবি: সংগৃহীত

সুস্বাদু খাবারের জন্য লবণ খুবই অপরিহার্য। লবণ ছাড়া কোনো খাবারেই যথার্থ স্বাদ আনা সম্ভব নয়। ঠিক একইভাবে কাজ করে চিনিও। মিষ্টি জাতীয় কোনো খাবার খেতে চাইলে চিনির বিকল্প খুব কমই আছে। এছাড়াও চিনি ব্যবহারে খাবারে যে স্বাদ আসবে তা অন্য কিছুর মাধ্যমে পূরণ করা কষ্টকর। তাই বলা চলে,  খাবারকে সুস্বাদু করতে লবণ আর চিনি এই দুটি উপাদান খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তবে যারা খুব বেশি স্বাস্থ্যসচেতন তারা এই দু’টি উপাদান অতিরিক্ত সেবন এড়িয়েই চলেন। চিকিৎসকদেরও মত, লবণ এবং চিনি অতি মাত্রায় শরীরে প্রবেশ করলে, তার নানাবিধ ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে।

এদিকে, মিনেসোটা ইনস্টিটিউট অফ অলটারনেটিভ মেডিসিনের গবেষকরা জানাচ্ছেন, লবণ আর চিনির পরিমিত সেবন নানা স্বাস্থ্য-সমস্যা থেকে মুক্তিও দিতে পারে। বিশেষত, অনিদ্রায় যারা ভোগেন, তারা বিশেষ উপকার পেতে পারেন লবণ ও চিনির বিধিসম্মত সেবনে।

একটি সাম্প্রতিক হেলথ জার্নালে গবেষকরা দাবি করেছেন, প্রতিদিন রাতে পরিমাণমতো লবণ ও চিনি খেলে দ্রুত ঘুম আসবে, এবং গভীর হবে ঘুম। এই উপকার পাওয়ার জন্য প্রথমে তৈরি করে নিতে হবে একটি মিশ্রণ।

কী কী লাগবে এই মিশ্রণ তৈরি করতে?

লাগবে সামান্য দু’টি জিনিস! পাঁচ চা চামচ লাল চিনি বা ব্রাউন সুগার এবং এক চা চামচ লবণ। এই দু’টি উপাদান ভালো করে মিশিয়ে একটি কাচের জারে বা অন্য কোনো পাত্রে রেখে দিন। ব্যস, আপনার প্রাকৃতিক ঘুমের ওষুধ তৈরি। এটি ঘুমানোর আগে এক কাপ খেলে প্রতি তিন দিনে দুই কেজি পর্যন্ত মেদ ঝরতে পারে।

লবণ ও চিনির এই মিশ্রণ ব্যবহার বিধি

প্রতিদিন রাতে শুতে যাওয়ার আধা ঘন্টা আগে মিশ্রণের এক চা চামচ পরিমাণ তুলে নিয়ে জিভের তলায় রাখুন। চিবানো বা পানি দিয়ে গিলে খাওয়া যাবে না। বরং ধীরে ধীরে মিশ্রণের উপাদানগুলোকে মুখের মধ্যে গলে যেতে দিন।

লবণ ও চিনির এই মিশ্রণে কী উপকার পাওয়া যাবে?

>> গবেষকদের দাবি, এই মিশ্রণ প্রধাণত ঘুমের উন্নতি ঘটায়। মিশ্রণটি মুখে দিয়ে চোখ বুজে শুয়ে থাকলে কয়েক মিনিটের মধ্যেই গভীর ঘুমে তলিয়ে যাবেন আপনি।

>> মাথাব্যথা কমানোর ক্ষেত্রেও খুব দ্রুত কাজ করে এই মিশ্রণ।

>> তাছাড়া রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার সামগ্রিক উন্নতি ঘটে এই মিশ্রণের প্রভাবে।

>> শীতকালে লবণ-চিনির এই মিশ্রণের নিয়মিত সেবন সর্দি-কাশিকে দূরে রাখে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ