উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমায় ভুট্টা 

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৪ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ১৯ ১৪২৭,   ১৯ রজব ১৪৪২

উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমায় ভুট্টা 

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:১১ ১০ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১১:২৫ ১০ জানুয়ারি ২০২১

ছবি: ভুট্টা

ছবি: ভুট্টা

শীতের সন্ধ্যায় ভুট্টা পোড়া খেয়েছেন নিশ্চয়! রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে অনেকেই উপভোগ করে থাকেন এই ভুট্টা পোড়া। তাছাড়াও ভুট্টা থেকে তৈরি পপকর্ণ সারা বছরই পাওয়া যায়।

জানেন কি, শুধু খেতেই সুস্বাদু নয়, ভুট্টার রয়েছে নানা পুষ্টিগুণও। এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, ভিটামিন, খনিজ ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পাওয়া যায়।  নিয়মিত ভুট্টা খেলে অনেক রোগ থেকে মুক্তি মেলে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক ভুট্টার পুষ্টিমান ও উপকারিতা সম্পর্কে-

> ভুট্টা সাধারণত রোস্ট বা স্টেম করে খাওয়া যায়। তাই প্রতিদিন খেলেও ওজন বেড়ে যাওয়ার বিষয়ে দুশ্চিন্তা করা লাগবে না। চাইলে ভুট্টা মাইক্রোওয়েভ ওভেনে গ্রিল করেও খেতে পারেন।

আরো পড়ুন: হার্টের সমস্যা প্রতিরোধ করবে ভেষজ ফল

> ভুট্টা আঁশে ভরা। এতে পরিপাকতন্ত্র সুস্থ থাকে। এতে বায়োফ্লাভোনয়েডস ও ক্যারোটিনয়েডসের মতো প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে, যা শরীরকে সুস্থ রাখে।

> ভুট্টায় প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে, যা কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এবং হজমে সহায়তা করে।

> যত ফাস্টফুড-নির্ভর জীবন হচ্ছে, ততই ঘরে ঘরে ক্যান্সারের সমস্যা বাড়ছে। অথচ হাতের কাছে ভুট্টা থাকলেও আমরা পাশ কাটিয়ে বার্গার-পিত্‍জার দোকানে চলে যাচ্ছি। ভুট্টায় থাকা ফেরুলিক অ্যাসিডের মতো যৌগ আমার আপনার ব্রেস্ট এবং লিভারে থাকা টিউমারের সাইজ কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ফ্ল্যাভানয়েড থাকে ভুট্টায়। যা ক্যান্সারের কোষগুলোকে বাড়তে দেয় না।

> ভুট্টায় প্রচুর পরিমাণে আয়রন ও ভিটামিন বি১২ বর্তমান, যা নতুন রক্তকোষ তৈরি করতে সাহায্য করে। এতে রক্ত স্বল্পতা দূর হয়।

আরো পড়ুন: যে পাঁচ রোগ বলে দেয় হাতের নখ

> প্রচুর শর্করা থাকে বলে দীর্ঘ ও স্বল্প মেয়াদে শরীরে শক্তি জোগাতে পারে। মস্তিষ্ক ও স্নায়ুতন্ত্রের সঠিক কার্যক্রমে সহায়ক। এক কাপ ভুট্টায় ২৯ গ্রাম শর্করা থাকে। অ্যাথলেটদের জন্য ভুট্টা উপকারী। ব্যায়াম শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে ভুট্টা খাওয়া উচিত।

> বয়স যতই বাড়ুক, চামড়া থাকবে টানটান। ভুট্টায় ভিটামিন সি, ভিটামিন এ এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে অনেকটাই। এই প্রতিটা জিনিসই চামড়া টানটান করে রাখে। তাই বলিরেখার যে সমস্যা ৩০-৪০ বছরে শুরু হয়, তা ভুট্টা খেলে অনেকটাই আয়ত্তে রাখা সম্ভব হয়।

> ভুট্টায় রয়েছে ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস যা হাই ব্লাড প্রেশার বা উচ্চ-রক্তচাপের ঝুঁকি কমায়।

> জিঙ্ক, ফসফরাস, ম্যাগনেশিয়াম, আয়রন থাকে ভুট্টায়। তাই ভুট্টা যত খাবেন, এই মিনারেলগুলো আপনার শরীরে পৌঁছে যাবে। আর এগুলোই আপনার আর্থ্রাইটিসের ব্যথা অনেকটা কমিয়ে দিতে পারে।

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে