ট্যাটু করলে হতে পারে যে মারাত্মক রোগ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৯ ১৪২৭,   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

ট্যাটু করলে হতে পারে যে মারাত্মক রোগ

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:২৩ ২০ অক্টোবর ২০২০  

ছবি: ট্যাটু করা বিপজ্জনক

ছবি: ট্যাটু করা বিপজ্জনক

বর্তমান প্রজন্ম তো ট্যাটু ছাড়া কিছুই বুঝে না, এমনই মত বয়স্কদের। বর্তমান হাল ফ্যাশনে ট্যাটু জায়গা দখল করেছে। অতীতেও শরীরে ট্যাটু বা উল্কি আঁকার প্রচলন ছিলো। তবে বর্তমানের মতো এতোটা না। 

ট্যাটু করার প্রবণতা গত কয়েক বছরে বেশ বেড়েছে। যা বেজায় ভয়ংকর বিষয়! ভয়ংকর কেন? সম্প্রতি একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ট্যাটু করার সময় যে রং ব্যবহার করা হয় তাতে এমন কিছু কেমিকেল থাকে। 

যা রক্তে বেশি মাত্রায় মিশে গেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমতে শুরু করে। ফলে ছোট-বড় যে কোনো রোগই বড় আকার ধারণ করার আশঙ্কা মারাত্মক বৃদ্ধি পায়। 

শুধু তাই নয়, আরও নানাভাবে শরীরের ভীষণ ক্ষতি হয়। সব থেকে ভয়ের বিষয় কি জানেন, বিজ্ঞানীরা এখনও পর্যন্ত বুঝে উঠতে পারেননি ট্যাটুর রঙে কী এমন আছে যা এতটা ক্ষতি করে থাকে। 

তবে একটা বিষয়ে তারা নিশ্চিত হয়েছেন, এই রঙে উপস্থিত নিকেল, ক্রোমিয়াম, কোবাল্ট এবং টাইটেনিয়াম ডাইঅক্সাইডের মতো উপাদান শরীরের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকারক। 

তাই তো এই উপাদানগুলোর মধ্যে কোনওটা যদি ভুলেও রক্তে মিশে যায়, তাহলে মারাত্মক কিছু ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে। 

শুধু তাই নয়, টাইটেনিয়াম ডাইঅক্সাইড ত্বকের সংস্পর্শে আশার পরে চুলকানি এবং প্রদাহজনিত সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়। 

প্রসঙ্গত, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা বা ইমিউন সিস্টেম হলো হাজারো কোষ এবং টিস্যুর একটি নেটওয়ার্ক। যা একসঙ্গে মিলে একটা শক্তিশালী প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলে। 

এই প্রতিরোধ সিস্টেমটি ছোট-বড় নানা রোগ থেকে আমাদের রক্ষা করে। তাই তো রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা ভেঙে পড়লে বেজায় বিপদ! 

এখন প্রশ্ন হলো, ট্যাটু করার পর বুঝবেন কীভাবে যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে পরেছে? এক্ষেত্রে সাধারণত যে যে লক্ষণগুলো প্রকাশ পেতে পারে, সেগুলো হলো- 

> মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়ার ইচ্ছা বেড়ে যেতে পারে। 

> সেই সঙ্গে ডিহাইড্রেশন, মারাত্মক ক্লান্ত লাগা, সর্দি-কাশির প্রকোপ বাড়া, 

> লিম্ব গ্ল্যান্ড ফুলে যাওয়া এবং শরীর ভাঙতে শুরু করতে পারে। 

> এমন সময় যত শীঘ্র সম্ভব চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। 

> পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এমন খাবার খেতে হবে প্রচুর পরিমাণে।

সূত্র: বোল্ডস্কাই

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস