জাদু দেখানোর নামে অশ্লীল নাচ, আওয়াজ তুলে মার খেলেন সাংবাদিক

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২,   ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

জাদু দেখানোর নামে অশ্লীল নাচ, আওয়াজ তুলে মার খেলেন সাংবাদিক

রংপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৩৭ ১৪ মে ২০২২   আপডেট: ১৫:৫০ ১৫ মে ২০২২

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাংবাদিক মিলন- ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাংবাদিক মিলন- ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রংপুরের পীরগঞ্জে মেলায় জাদু দেখানোর না‌মে অশ্লীল নাচ প্রদর্শন নিয়ে আওয়াজ তুলেছেন এক সাংবাদিক। এ বিষয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন তিনি। এ অপরাধে ঐ সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করেছে ইউপি চেয়ারম্যানের লোকজন। আহত ঐ সাংবাদিক বর্তমানে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

শুক্রবার রাতে ঐ উপজেলার বড় আলমপুর ইউনিয়নের ধর্মদাসপুর বারুনীর মেলায় এ ঘটনা ঘটে। সাংবাদিক মিনহাজুল মিলন ঐ এলাকার বাসিন্দা।

তিনি বলেন, বড় আলমপুর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সেলিমের নেতৃত্বে বৃহস্পতি ও শুক্রবার ধর্মদাসপুর বারুনী মেলায় জাদু প্রদর্শনীর নামে অশ্লীল নাচ দেখানো হচ্ছিল। মানুষ টিকিট কেটে জাদু দেখতে গিয়ে প্রতারণার শিকার হচ্ছিল। শুক্রবার রাতে আমি মেলায় গিয়ে অশ্লীল নাচের বিরুদ্ধে ফেসবুকে পোস্ট দেই। বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজরে পড়লে তাৎক্ষণিক অশ্লীল নাচ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে লোক দিয়ে মেলার মধ্যেই আমাকে মারধর করেন।

সাংবাদিক মিলন বলেন, চেয়ারম্যান সেলিমের নির্দেশে তার ফুফাতো ভাই রতন, চাচাতো ভাই রবিউল, মামা মাসুদ, খালাতো ভাই শফিকসহ ১০-১২ জন আমার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। পরে আশপাশের মানুষের সহায়তায় আমি তাদের হাত থেকে রক্ষা পাই।

অভিযুক্ত চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সেলিম বলেন, আমি কাউকে মারার নির্দেশ দেইনি। সাংবাদিক মিলন আহত হয়েছেন শুনে হাসপাতালে গিয়ে তাকে দেখে এসেছি। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/জেএইচ

English HighlightsREAD MORE »