৩০ বছর ধরে পুরুষদের প্রবেশ নিষিদ্ধ, তবুও গ্রামের নারীরা হন গর্ভবতী
15-august

ঢাকা, বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২,   ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯,   ১১ মুহররম ১৪৪৪

Beximco LPG Gas
15-august

৩০ বছর ধরে পুরুষদের প্রবেশ নিষিদ্ধ, তবুও গ্রামের নারীরা হন গর্ভবতী

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:৩৮ ৮ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ১০:৩৯ ৮ এপ্রিল ২০২২

৩০ বছর ধরে পুরুষদের প্রবেশ নিষিদ্ধ, তবুও গ্রামের নারীরা হন গর্ভবতী। ছবি: সংগৃহীত

৩০ বছর ধরে পুরুষদের প্রবেশ নিষিদ্ধ, তবুও গ্রামের নারীরা হন গর্ভবতী। ছবি: সংগৃহীত

দক্ষিণ আফ্রিকার ঘন জঙ্গলে গড়ে ওঠা এই গ্রামে শুধু নারীরাই বাস করেন। প্রায় আড়াইশো নারী বাস করেম সেখানে। গ্রামে ৩০ বছর ধরে কোনো পুরুষের প্রবেশ নেই। তাও সেই গ্রামে নারীরা গর্ভবতী হয়ে পড়ছেন! বিষয়টি অবিশ্বাস্য লাগলেও আফ্রিকায় এমনই একটি গ্রাম আছে যেখানে এই ধরনের ঘটনা ঘটছে।

উমোজা গ্রামের নারীরা গ্রামটির নাম উমোজা। দক্ষিণ আফ্রিকার ঘন জঙ্গলে গড়ে ওঠা এই গ্রামে শুধু নারীরাই বাস করেন। প্রায় আড়াইশো নারী রয়েছেন এই গ্রামে। ১৯৯০ সালে গ্রামটি গড়ে তোলেন ১৫ জন নারী। ব্রিটিশ সেনারা এই ১৫ জন নারীকে ধর্ষণ এবং শারীরিক নির্যাতন করেছিলেন বলে অভিযোগ। তার পর থেকেই পুরুষদের প্রতি ঘৃণা জন্মায় ঐ নারীদের মনে। ঘন জঙ্গলের মধ্যে একটি গ্রাম গড়ে তোলেন তারা। সেখানে অত্যাচারিত নারীদের ঠাঁই দেওয়া হয়। একই সঙ্গে পুরুষদের প্রবেশ পুরোপুরি নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়।

পুরুষদের যেখানে কোনো ভাবেই প্রবেশের অনুমতি নেই, সেখানে কীভাবে গর্ভবতী হচ্ছেন নারীরা?পুরুষদের যেখানে কোনো ভাবেই প্রবেশের অনুমতি নেই, সেখানে কীভাবে গর্ভবতী হচ্ছেন নারীরা? এই প্রশ্নটা স্বাভাবিক ভাবেই আসবে। না, এটা কোনো চমৎকার নয়। পুরুষের প্রবেশ নিষিদ্ধ হলেও রাতের বেলায় বহু পুরুষ চুপিসারে এই গ্রামে ঢোকেন। নারীরা তাধের মধ্যে থেকে নিজেদের পছন্দের মানুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করেন। গর্ভবতী হয়ে পড়ার পর ঐ পুরুষের সঙ্গে আর কোনো রকম সম্পর্ক রাখেন না তারা। নারীরা সন্তানদের জন্ম দেন এবং নিজেরাই তাদের লালনপালন করেন।

সূত্র: আনন্দবাজার 

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএ

English HighlightsREAD MORE »