রাগে স্ত্রীকে বিমান থেকে সমুদ্রে ফেলে দেন স্বামী

ঢাকা, রোববার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২২ ১৪২৮,   ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

রাগে স্ত্রীকে বিমান থেকে সমুদ্রে ফেলে দেন স্বামী

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:২৮ ২৩ অক্টোবর ২০২১  

রাগে স্ত্রীকে বিমান থেকে সমুদ্রে ফেলে দেন স্বামী। ছবি সংগৃহীত

রাগে স্ত্রীকে বিমান থেকে সমুদ্রে ফেলে দেন স্বামী। ছবি সংগৃহীত

স্ত্রীর রাগারাগিতে বিরক্ত হয়ে গিয়েছিল স্বামী। নিজের রাগও আর ধরে রাখতে পারেনি। তাই স্ত্রীকে খুন করে বিমান থেকে ফেলে দেয় স্বামী। দীর্ঘ ৩০ বছরে ধরে এই সত্যি লুকিয়ে রেখেছিল সে। বরং সবার কাছ থেকে সযত্নে লুকিয়ে রাখে সেই সত্যিটা।

রবার্ট বিরেনবামের স্ত্রী ১৯৮৫ সালে তার স্ত্রীকে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয় তিনি। দোষী ঐ স্বামীর নাম রবার্ট বিরেনবাম। নিউয়র্কের একজন প্রাক্তন প্লাস্টিক সার্জন ছিল সে। ৩০ বছর ধরে নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করে। এই প্রাক্তন প্লাস্টিক সার্জন একজন অভিজ্ঞ পাইলটও। সে তার স্ত্রী গেইল কাটজকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে লাশটি বিমান থেকে ফেলে দেয়। 

রবার্ট বিরেনবাম পরে জানায়, তখন আমি আমার রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে জানতাম না। স্বীকারক্তিতে সে বলে, স্ত্রী আমার ওপর রাগারাগি করছিল। তাই স্ত্রীকে খুন করে দেহ ফেলে দিই। জানা যায়, সে একজন সাইকোপ্যাথ।

 রবার্ট বিরেনবাম এবং তার স্ত্রী ঐ দম্পতির এক বন্ধু জানান, আমি হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম কারণ আমি সবসময় ভাবতাম যে এমন দিন আর আসবে না যে সে তার স্ত্রীকে হত্যা করবে। গেইলের বোন দাবি করেন যে তার সন্দেহ ছিল বিরেনবাম গেইলকে হত্যা করেছে তখন সে জানতে পারেন যে তার বোন নিখোঁজ। 

গেইলের বোনের মতে, বিযরেনবাম বিয়ের আগে তার হিংস্র প্রবণতা দেখাতে শুরু করেছিলেন। একবার রবার্ট একটি বিড়ালকে মেরে ফেলারও চেষ্টা করেছিল, বলেও জানা যায়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএ