মেয়েদের মন পেতে উন্মুক্ত নৃত্যে মেতে ওঠে পুরুষ সেজ-গ্রুস

ঢাকা, বুধবার   ০৪ আগস্ট ২০২১,   শ্রাবণ ২০ ১৪২৮,   ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

মেয়েদের মন পেতে উন্মুক্ত নৃত্যে মেতে ওঠে পুরুষ সেজ-গ্রুস

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:১৬ ২১ জুন ২০২১   আপডেট: ২১:২৩ ২১ জুন ২০২১

মেয়েদের মন পেতে উন্মুক্ত নৃত্যে মেতে ওঠে পুরুষ সেজ-গ্রুস

মেয়েদের মন পেতে উন্মুক্ত নৃত্যে মেতে ওঠে পুরুষ সেজ-গ্রুস

সঙ্গীর মন পেতে প্রেমিক কত কিছুই না করে থাকে। শুধু মানুষই যে নারীর মন পেতে অনেক কিছু করে থাকে তা নয়। প্রাণী জগতে অনেক পশু-পাখিও প্রেমিক হিসেবে পরিচিত। তারা সঙ্গীর মন পেতে কত কিছুই না করে। তেমনই এক প্রজাতির প্রেমিক পাখি সেজ-গ্রুস। মেয়েদের মন পেতে উন্মুক্ত নৃত্যে মেতে ওঠে পুরুষ সেজ-গ্রুস।

সেজ-গ্রুস পাখির দেখা মেলে উত্তর আমেরিকার সেজ-গুল্ম প্রধান অঞ্চলে। সেজ-গুল্মে বসবাস করে বলেই এদের নাম সেজ-গ্রুস। বিশ্বের অন্যতম রোম্যান্টিক পাখি এটি। মেয়েদের মন পেতে এই প্রজাতির পুরুষ পাখিদের উন্মুক্ত নৃত্য প্রতিযোগিতায় নামতে হয়। এই নৃত্যে একটি পুরুষ পাখিকে নারী সঙ্গীর সঙ্গে মিলিত হতে অন্য পুরুষ পাখিদের হারাতে হয়। যে পুরুষ সেজ-গ্রুস তার বাহারি নৃত্য দেখিয়ে অন্য পুরুষ পাখিদের হারাতে পারে সেটি উপস্থিত সব মেয়ে সেজ-গ্রুসের মন জয় করতে সক্ষম হয় এবং মিলিত হওয়ার সুযোগ পায়। আর যে পুরুষ সেজ-গ্রুসগুলো পরাজিত হয় তাদের ভাগ্যে সঙ্গীই জোটে না। উন্মুক্ত এ নৃত্যে মেয়েদের মন না পেলে নিঃসঙ্গ থাকতে হয় পুরুষ সেজ-গ্রুসকে।

পুরুষ সেজ-গ্রুসের গলা ও বুকের মধ্যবর্তী স্থানে থলির মতো বর্ধিত অংশ থাকে যেগুলো মেয়েদের মন জয় করতে নৃত্য প্রদর্শনের সময় ফুলে ওঠে। পাখিটির এ অঙ্গের মধ্যবর্তী অংশের রঙ হলুদ। তারা মেয়েদের মন পেতে এ অংশ স্ফীত করে উন্মুক্ত নৃত্য প্রদর্শন করে। নৃত্যর তালে তালে পুরুষ সেজ-গ্রুস বিভিন্ন শব্দও করে। যে পুরুষ সেজ-গ্রুসের গলা ও বুকের বর্ধিত অংশ নৃত্যের সময় বেশি স্ফীত এবং উজ্জ্বল বর্ণের হয় মেয়েরা তাকেই পছন্দ করে। এই নৃত্যটি পুরুষ পাখিদের জন্য দীর্ঘ সময়ের ও ক্লান্তিকরও হয়ে থাকে। নৃত্য স্থানে উপস্থিত সব মেয়ে পাখিই বিজয়ী পুরুষ সেজ-গ্রুসের সঙ্গে মিলিত হতে চায়।

মূলত যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় এ প্রজাতির পাখির বসবাস। সেজব্রাশ বা ঘাসের প্যাচগুলোর নিচে তারা বাসা বাঁধে। এরা সেজব্রাশ ছাড়াও অন্যান্য গাছপালা এবং পোকামাকড়ও খায়। তবে বীজ জাতীয় খাবারে এরা অভ্যস্ত নয়। কারণ, তারা শক্ত বীজ হজম করতে সক্ষম নয়।

মেয়ে সেজ-গ্রুস পাখিদের আকার তুলনামূলকভাবে ছোট হয়

প্রাপ্তবয়স্ক সেজ-গ্রুসের মাঝারি আকারের লেজ থাকে। এর পায়ের আঙ্গুলের পালক রয়েছে। প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ পাখিদের চোখের পাশের পালকে হলুদ রঙের ফোটা ফোটা দাগ থাকে। এদের সাদা বুকের উপরের অংশ ধূসর রঙের হয়। বাদামি রঙের গলা ও পেটের রঙ কালো। পুরুষ সেজ-গ্রুসের গলায় দুটি হলুদ রঙের থলির মতো বর্ধিত অংশ থাকে যেগুলো মেয়েদের মন জয় করতে নৃত্য প্রদর্শনের সময় ফুলে ওঠে। প্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে সেজ-গ্রুসের হালকা বাদামি গলা ও পেটসহ শরীরের অন্যান্য অংশ ধূসর-বাদামি রঙের হয়। প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষদের দৈর্ঘ্য ২৬ থেকে ৩০ ইঞ্চি এবং ওজন ৪ থেকে ৭ পাউন্ডের মধ্যে। প্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে পাখিদের আকার তুলনামূলকভাবে ছোট হয়। মেয়ে সেজ-গ্রুসদের দৈর্ঘ্যে ১৯ থেকে ২৩ ইঞ্চি এবং ওজন ২ থেকে ৪ পাউন্ডের মধ্যে হয়ে থাকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এইচএন