৯ জুন ১৯৭১: পাকসেনাদের সাহায্য করতে বিশ্বব্যাংক ও জাতিসংঘ দুটি প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসে

ঢাকা, রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৪ ১৪২৮,   ১০ সফর ১৪৪৩

৯ জুন ১৯৭১: পাকসেনাদের সাহায্য করতে বিশ্বব্যাংক ও জাতিসংঘ দুটি প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসে

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:৫৩ ৯ জুন ২০২১   আপডেট: ১০:৫৪ ৯ জুন ২০২১

হানাদার বাহিনী নিরস্ত্র বাঙালির উপর নির্মম অত্যাচার চালাতে থাকে। ফাইল ছবি

হানাদার বাহিনী নিরস্ত্র বাঙালির উপর নির্মম অত্যাচার চালাতে থাকে। ফাইল ছবি

বিশ্বব্যাংক ও জাতিসংঘ দুটি প্রতিনিধি দল ঢাকায় পাঠায়। দলের সদস্যরা তিনটি গাড়ীতে করে এয়ারপোর্ট থেকে ময়মনসিংহ রোড ধরে পাক আর্মির প্রহরায় হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের গেটের সামনে আসতেই গ্রেনেড ছুঁড়লেন মুক্তিযোদ্ধাদের একটি দল। মুক্তিযোদ্ধাদের ছোঁড়া একের পর এক গ্রেনেডে প্রকম্পিত হলো পুরো এলাকা। ঢাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের এটাই প্রথম বড় ধরনের ও গুরুত্বপূর্ণ গেরিলা অপারেশন।

মার্কিন সিনেটে ডেমোক্র্যাট সিনেটর ফ্রাংক চার্চ ও রিপাবলিকান সিনেটর উইলিয়াম স্যাক্সবি পাকিস্তানে মার্কিন অর্থনৈতিক ও সামরিক সাহায্য বন্ধ রাখার জন্য একটি দ্বিপক্ষীয় সংশোধনী প্রস্তাব আনেন। প্রস্তাবে বলা হয় পূর্ব বাংলার শরণার্থীরা কেবল ভারতের বোঝা হয়ে দাঁড়ায়নি, পাশাপাশি এ সমস্যার ফলে এ এলাকার শান্তিভঙ্গের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। আমরা মনে করি, উদ্বাস্তুদের দুঃখ-দুর্দশা লাঘবের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের উচিত সেখানে আন্তর্জাতিক সাহায্য পাঠানো এবং উদ্বাস্তুদের স্বদেশে প্রত্যাবর্তনের ব্যবস্থা করা।

ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক অর্গানাইজেশনের মহাসচিব এইচ এইচ মার্জুকি জাতিম জাকার্তায় এক বিবৃতিতে ভারতে অবস্থানরত বাংলাদেশের নাগরিকদের সাহায্য করার জন্য মুসলিম রাষ্ট্রসমূহের সরকার প্রধানদের প্রতি আহ্বান জানান। জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দুত এবং সহকারী মহাসচিব (জরুরী দায়িত্ব) ইসমত কিত্তানি পূর্ব পাকিস্তানে পাকিস্তান সরকারের ত্রাণ চাহিদা নিরূপণের জন্য পূর্ব পাকিস্তানে ৫ দিন সফর শেষে নিউইয়র্কের পথে করাচী ত্যাগ করেছেন। পাকিস্তান জাতিসংঘের কাছে ইতিপূর্বে যে ত্রাণ সাহায্য চেয়েছিল তা দেয়ার তিনি আভাস দিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্র সরকার বাংলাদেশের শরণার্থীদের জন্য ভারতকে অতিরিক্ত দেড় কোটি ডলার সাহায্য মঞ্জুর করে। জাতিসংঘ উদ্বাস্তু সংক্রান্ত হাই কমিশনার প্রিন্স সদরুদ্দিন আগা খান পূর্ব পাকিস্তান সফরে ইসলামাবাদ থেকে ঢাকা আসেন। স্বাধীনতা বিরোধী আওয়ামী লীগের কিছু পাকিস্তানী দালাল মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতা করে ‘আওয়ামী এ্যাকশন কমিটি’ গঠন করে। এ্যাকশন কমিটির সভাপতি মীর ওয়াইজ মোহাম্মদ ফারুক দেশের সার্বিক অবস্থার জন্য মুক্তিযোদ্ধাদের দায়ী করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে