১৯ মে ১৯৭১: মুক্তিযোদ্ধারা অভিযানের সময় পাকসেনাদের গাড়ি ও গোলাবারুদসহ অস্ত্রশস্ত্র লাভ করে

ঢাকা, রোববার   ২০ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৬ ১৪২৮,   ০৮ জ্বিলকদ ১৪৪২

১৯ মে ১৯৭১: মুক্তিযোদ্ধারা অভিযানের সময় পাকসেনাদের গাড়ি ও গোলাবারুদসহ অস্ত্রশস্ত্র লাভ করে

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৭:২০ ১৯ মে ২০২১   আপডেট: ০৭:৪৩ ১৯ মে ২০২১

মুক্তিযোদ্ধারা পাকবাহিনীর ওপর মুক্তিযোদ্ধারা অতর্কিতে আক্রমণ চালায়। ফাইল ছবি

মুক্তিযোদ্ধারা পাকবাহিনীর ওপর মুক্তিযোদ্ধারা অতর্কিতে আক্রমণ চালায়। ফাইল ছবি

নওগাঁয় ধামুহরহাট থানায় অবস্থানরত পাকবাহিনীর ওপর মুক্তিযোদ্ধারা অতর্কিতে আক্রমণ চালায়। এই অভিযানে একজন অফিসারসহ কয়েকজন পাক সৈন্য নিহত হয়। অপরদিকে একজন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ও দুইজন আহত হন।

অন্যদিকে মুক্তিযোদ্ধারা এক অভিযানে পাকবাহিনীর তেলিয়াপাড়া চা বাগান এলাকায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে সিলেটগামী পাকবাহিনীর দু’কোম্পানি সৈন্যকে অ্যামবুশ করে। মুক্তিযোদ্ধাদের এই অভিযানে এক কোম্পানী পাকসেনা নিহত হয় ও তিনটি সামরিক যান ধ্বংস হয়। এই অভিযান থেকে মুক্তিযোদ্ধারা একটি গাড়ি ও গোলাবারুদসহ অস্ত্রশস্ত্র লাভ করে।

জাতিসংঘের মহাসচিব উ থান্ট নিউইয়র্কে বলেন, “পূর্ব পাকিস্তান থেকে দলে দলে শরণার্থী ভারতে উপস্থিত হওয়ায় জাতিসংঘ বিশেষভাবে উদ্বিগ্ন। এখনও বিপুল সংখ্যক শরণার্থী ভারতে আসছেন। এদের মধ্যে বহু শিশু ও নারী রয়েছেন। তাদের দুঃখ-দুর্দশার অন্ত নেই। পূর্ব পাকিস্তান থেকে যে অসংখ্য লোক ভারতে চলে আসছেন, তাদের আশু সাহায্যের যে খুবই প্রয়োজন, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। আমি একান্তভাবে আশা করি, এসব হতভাগ্য লোককে যথাশীঘ্র স্বেচ্ছায় ফিরিয়ে নেয়া হবে।”

তিনি আরো বলেন, “এটা সুস্পষ্ট যে, যতদিন না তাদের ফিরিয়ে নেয়া হচ্ছে, ততদিন আপৎকালীন ভিত্তিতে ব্যাপক বৈদেশিক সাহায্যের প্রয়োজন হবে। এ জন্য ভারত আমার ও জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার কাছে যত শীঘ্র সম্ভব শরণার্থী সাহায্য করার জন্য আবেদন জানিয়েছেন। আমি জাতিসংঘের সমস্ত সংস্থার পক্ষ হতে বিভিন্ন সরকার, আন্তঃসরকারি ও বেসরকারি সংস্থা এবং ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠাগুলোর কাছে আবেদন জানাচ্ছি, তারা যেন বর্তমান মর্মন্তদ পরিস্থিতিতে মানবকল্যাণ কাজে সাহায্যে এগিয়ে আসেন।”

মুজিবনগরে বটগাছ ও খামারবাড়ি এলাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের যুব ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। এ ক্যাম্পে যোদ্ধাদের গেরিলা ট্রেনিং দেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। পাক বর্বররা সিলেটের গালিমপুরে ব্যাপক হত্যাযজ্ঞ চালায়। হানাদারদের এই নৃশংস হত্যাযজ্ঞ ৩১ জন নিরীহ গ্রামবাসী নিহত হয়।

প্রাদেশিক জামায়াতে ইসলামীর মহাসচিব আবদুল খালেক ও শ্রম সচিব মোহাম্মদ শফিউল্লাহ এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, পাকিস্তান বিরোধী দুষ্কৃতকারী ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ত্রাসের রাজত্ব শেষ হয়েছে। পাকিস্তানের বীর সেনাবাহিনী সময় মতো ব্যবস্থা নেয়ায় সহজেই পরিস্থিতি আয়ত্বে এসেছে। সেনাবাহিনী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সম্পূর্ণ নিশ্চিহ্ন  করতে বদ্ধপরিকর। আমরা তাদের উৎখাত করতে সেনাবাহিনীকে সাহায্য করার জন্য পূর্ব পাকিস্তানে মুসলমানদের এগিয়ে আসার জন্য আবেদন জানাচ্ছি।

ঢাকায় সামরিক শাসন কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেন, রংপুর জেলার তিনজন জাতীয় পরিষদ সদস্য নূরুল হক, আজিজুর রহমান ও ডা. আবু সোলায়মান আওয়ামী লীগের সাথে সম্পর্কচ্ছেদের কথা ঘোষণা করেছেন।

শান্তি ও কল্যাণ পরিষদ নেতা মৌলভী ফরিদ আহমেদ করাচিতে এক সংবাদ সম্মেলনে বেআইনি ঘোষিত আওয়ামী লীগের সদস্যদের প্রকাশ্য বিচার দাবি করেন। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সহযোগীরা যা করছে তা দেশদ্রোহিতার নামান্তর। তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে সহায়তা করার জন্য ইন্দিরা গান্ধীর সমালোচনা করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে