বিল গেটস-মেলিন্ডার জমি ভাগাভাগি ও বিচ্ছেদের খরচ

ঢাকা, সোমবার   ০২ আগস্ট ২০২১,   শ্রাবণ ১৮ ১৪২৮,   ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

বিল গেটস-মেলিন্ডার জমি ভাগাভাগি ও বিচ্ছেদের খরচ

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৪১ ৪ মে ২০২১   আপডেট: ১৩:৪৪ ৪ মে ২০২১

মাইক্রোসফট কর্পোরেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা গেটস। ছবি: সংগৃহীত

মাইক্রোসফট কর্পোরেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা গেটস। ছবি: সংগৃহীত

২৭ বছর একসঙ্গে থাকার পর বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়েছেন মাইক্রোসফট কর্পোরেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা গেটস। তাদের দুজনের রয়েছে বিপুল পরিমাণ যৌথ সম্পত্তি। বিলিওনেয়ার এই দম্পতির তিন সন্তান আছে এবং তারা যৌথভাবে ‘বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন’ পরিচালনা করেন। স্বভাবতই এ ঘটনা সংস্থার জন্য হুমকিস্বরুপ।

বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনে ওপর এ বিচ্ছেদ কোনো প্রভাব ফেলবে না বলে জানিয়েছেন এই দম্পত্তি। ফাউন্ডেশনের কৌশলগত বিষয়ের অনুমোদন, সব আইনি ইস্যু এবং সংস্থার সামগ্রিক দিকনির্দেশনা নির্ধারণে একত্রে কাজ করে যাবেন বিল গেটস ও মেলিন্ডা।

ফোর্বসের হিসেবে, বিল গেটস এ মূহুর্তে বিশ্বের চতুর্থ ধনী এবং তার সম্পদের পরিমাণ প্রায় ১২৪ বিলিয়ন ডলার। তবে বিল গেটস ও মেলিন্ডার যৌথ সম্পত্তিও কম নয়। এরই মধ্যে যা নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা। তাদের যৌথ সম্পদ কত? কীভাবে সেগুলো বন্টন হবে? এসব প্রশ্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়ও ঘুরপাক খাচ্ছে।

জমি ভাগাভাগি

যুক্তরাষ্ট্রে বেসরকারিভাবে সবচেয়ে বেশি কৃষিজমির মালিক মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। দেশটির ১৮টি অঙ্গরাজ্যে ছড়িয়ে থাকা এসব জমির পরিমাণ ২ লাখ ৪২ হাজার একর। এর মধ্যে লুইজিয়ানায় ৬৯ হাজার ৭১ একর, আরকানসাসে ৪৭ হাজার ৯২৭ একর ও নেব্রাস্কায় ২০ হাজার ৫৮৮ একর কৃষিজমি রয়েছে। এসব জমিতে যৌথ মালিকানা রয়েছে মেলিন্ডারও।

বিল গেটস ও মেলিন্ডার মধ্যে এই জমিগুলো ভাগাভাগি নিয়ে জটিল আকার ধারণ করবে বলে শোনা যাচ্ছে। এছাড়াও গেটস পরিবারের সম্পদের পরিমাণ প্রায় ১০০ বিলিয়ন ডলার। তাই বিল গেটসের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের আপস-রফা হিসেবে মেলিন্ডা কী পাবেন, সে বিষয়ে চলছে জল্পনা।

বিয়ের ছয় বছর পর এই দম্পত্তি গড়ে তোলেন দাতব্য প্রতিষ্ঠান বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। ছবি: সংগৃহীত

বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন

১৯৯৪ সালে তারা বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন বিল গেটস ও মেলিন্ডা। বিয়ের ছয় বছর পর তারা যৌথভাবে গড়ে তোলেন দাতব্য প্রতিষ্ঠান ‘বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন’। প্রতিষ্ঠানটি সংক্রামক রোগ ও শিশুদের টিকাদান উৎসাহিত করতে বিলিয়ন ডলার অর্থ ব্যয় করে।

১৯৯৪ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত এই ফাউন্ডেশনে ৩ হাজার ৬০০ কোটি ডলার দিয়েছেন গেটস ও মেলিন্ডা দম্পতি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে পোলিও প্রতিরোধের জন্য ২০০৮ সালে ৬৮ কোটি ২৩ লাখ ডলার অনুদান দেন বিল গেটস। করোনাকালে দেন ১৫ কোটি ডলারের আর্থিক সহায়তার। প্রয়োজনে এই সহায়তা আরো ১০ কোটি ডলার বাড়ানোরও আশ্বাস দিয়েছেন বিল গেটস।

২০১৯ সালের শেষ পর্যন্ত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই ফাউন্ডেশনের আকার ৪ হাজার ৩৩০ কোটি ডলার। এই আকার ৫ হাজার কোটি ডলারে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য ছিল গেটস ও মেলিন্ডার। তবে বিচ্ছেদের পর তাদের লক্ষ্যে পৌঁছানো হবে কি-না তা নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয়। আর যদি দুজন এই প্রতিষ্ঠানে না থাকেন, তাহলে ভাগাভাগিটা কীভাবে হবে সেটা নিয়েও প্রশ্ন জেগেছে।

বিল-মেলিন্ডার যৌথ মালিকানাধীন সম্পত্তি কীভাবে ভাগ হবে বা বিচ্ছেদের চুক্তি কী হচ্ছে, সে বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো পক্ষের কাছ থেকেই কিছু জানা যায়নি। সংশ্লিষ্ট আদালতের কাছে বৈবাহিক সম্পর্ক মিটিয়ে ফেলার আবেদনের পাশাপাশি বিচ্ছেদ চুক্তি অনুযায়ী ব্যবসায়িক স্বার্থ, দায়বদ্ধতা এবং যৌথ মালিকানাধীন সম্পত্তিও ভাগ করার জন্য আবেদন জানিয়েছেন। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে