৫৪,৮৫০ কোটি টাকার মালিক, ভারতের সবচেয়ে ধনী নারী

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ১৪ ১৪২৭,   ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

৫৪,৮৫০ কোটি টাকার মালিক, ভারতের সবচেয়ে ধনী নারী

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:০৬ ৫ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:১০ ৫ ডিসেম্বর ২০২০

ছবি: রোশনি নাডর

ছবি: রোশনি নাডর

বর্তমানে ভারতের সবচেয়ে ধনী নারী হলেন রোশনি নাডর। ৫৪ হাজার ৮৫০ কোটি টাকার মালিক তিনি। টেক সংস্থা এইচসিএল-এর কর্ণধার শিব নাডরের একমাত্র কন্যা রোশনি। তিনিই এখন এইচসিএল-এর চেয়ারপার্সন। 

আরো পড়ুন: বিবিসি’র ১০০ অনুপ্রেরণা সৃষ্টিকারী নারীর তালিকায় ২ বাংলাদেশি

রোশনি নাডর

আরো পড়ুন: বিশ্বসেরা আবেদনময় পাঁচ পুরুষ

কোটাক ওয়েলথ ও হুরুন ইন্ডিয়ার সার্ভে বলছে, ২০২০-তে দেশের সবচেয়ে ধনী নারী রোশনি। রোশনির পরেই দেশের ধনী নারীর তালিকায় রয়েছেন বায়োকন-এর কর্ণধার কিরণ মজুমদার। তার সম্পত্তির পরিমাণ ৩৬ হাজার ৬০০ কোটি টাকা।  

রোশনি তার মেধা ও যোগ্যতা দিয়ে নিজেকে প্রমাণ করেছেন

আরো পড়ুন: বিশ্বের সবচেয়ে ধনী জেফ বেজোস, এরপর যারা রয়েছেন

মাত্র ২৮ বছর বয়সে রোশনি এইচসিএল-এর সিইও হন। ২০১৯ সালে রোশনি ৩৬ হাজার ৮০০ কোটি টাকার মালকিন ছিলেন। ওই বছরের ফোর্বস ম্যাগাজিনে সবচেয়ে ক্ষমতাবান ১০০ নারীর তালিকায় ৫৪ নম্বরে ছিলেন রোশনির নাম। 

তরুন প্রজন্মের অনুপ্রেরণা রোশনি

আরো পড়ুন: ওষুধি গাছ দিয়ে ৫০০ রোগ সারাতে পারেন এই নারী

অতীতে মিডিয়া জগতেও কাজ করেছেন রোশনি। তিনি এইচসিএল কর্পোরেশনে কাজের পাশাপাশি স্কাই নিউজ ইউকে এবং সিএনএন আমেরিকার নিউজ প্রোডিউসার হিসেবেও কাজ করেছেন। 

বাবা শিব নাডরের সঙ্গে রোশনিরোশনি নাডর বিয়ে করেছেন এইচসিএল’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালনা পর্ষদের সদস্য শেখর মালহোত্রাকে। বর্তমানে তাদের দুইটি পুত্রসন্তান রয়েছে।

স্বামী শেখরের সঙ্গে রোশনিরোশনি এইসিএল-এর দায়িত্ব নেয়ার পর একের পর এক সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যার সুফল পেয়েছে সংস্থাটি। তার কারণেই সংস্থাটির আরো অনেক উন্নতি হয়েছে।

রোশনি নাডররোশনির বাবা শিব নাডর তার ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন ১৯৭০ সালে দিল্লির বারাসাতিতে। সেখানে একটি বাসার ছাদে ছোট্ট এক টুকরো জায়গায় ৫ জনে মিলে হার্ডওয়্যার তৈরি করা শুরু করেন। এরপর তারা সফটওয়্যার সংস্থা হিসেবেও কাজ শুরু করেন। শিব নাডরকে টেক দুনিয়ার শাহেনশাহ হিসেবেও সম্বোধন করেন। 

সূত্র: টাইমসঅবইন্ডিয়া, ফরচুনইন্ডিয়া

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস