সূর্যের ৪৪ শতাংশ ঢেকে দিল চাঁদ, নিজ চোখেই দেখুন!

ঢাকা, রোববার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ২২ ১৪২৭,   ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

সূর্যের ৪৪ শতাংশ ঢেকে দিল চাঁদ, নিজ চোখেই দেখুন!

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:২৩ ২৪ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৩:৩৫ ২৪ অক্টোবর ২০২০

ছবি: সূর্যকে ঢেকে দিচ্ছে চাঁদ

ছবি: সূর্যকে ঢেকে দিচ্ছে চাঁদ

সোলার ডায়ানামিকস অবজারভেটরির টেলিস্কোপ দিয়ে সূর্যকে পর্যবেক্ষণ করার সময় এমন অসাধারণ ঘটনার সাক্ষী হয় নাসা। 

এই ঘটনাটি ঘটেছে প্রায় ৫০ মিনিট ধরে! এতক্ষণ ধরে নেয়া ভিডিও তো আর পোস্ট করা সম্ভব নয়। পুরো ঘটনার একটা সারসংক্ষেপ পোস্ট করেছে নাসা।

সম্প্রতি নিজেদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক অসাধারণ মহাজাগতিক ঘটনার কথা জানাল আন্তর্জাতিক মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (নাসা)। 

নাসার সান অ্যান্ড স্পেস বিভাগ একটি ভিডিও পোস্ট করেছে টুইটারে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বিশাল সূর্যকে প্রায় ৪৪ শতাংশ ঢেকে দিয়ে এগিয়ে গেছে চাঁদ। পুরো ঘটনার একটা সারসংক্ষেপ পোস্ট করেছে নাসা।

আর তারপরেই দারুণ হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। কেননা, সূর্যের ব্যাস প্রায় ১৩ লাখ ৯২ হাজার কিলোমিটার। আর চাঁদের ব্যাস ৩ হাজার ৪৭৪.২০৬ কিলোমিটার! সেদিক থেকে দেখলে এই অসাধ্য সাধনের ঘটনাকে নেটিজেনরা চাঁদের স্পর্ধা বলেই ব্যাখ্যা করছেন।

তবে কয়েকদিন ধরে সূর্যকে পর্যবেক্ষণ করছে কেন নাসা? কিছুদিন আগেই জানা গেছে, সূর্য এখন রয়েছে ঘুমন্ত অবস্থায়। নক্ষত্রের উত্তাপ বিকিরণ হয় তার বুকে ক্রমাগত ঘটে চলা আণবিক বিস্ফোরণের ফলে। 

এই আণবিক বিস্ফোরণ থেকে জন্ম নেয় একেকটি চক্র যাকে বিজ্ঞানের পরিভাষায় বলা হয়ে থাকে সানস্পট। একেকটি সানস্পটের মেয়াদ কাল হল ১১ বছর। সূর্য আপাতত ঝিমিয়ে রয়েছে। মানে সেখানে এখন কোনো সানস্পট চলছে না!

নাসা পাশাপাশি আরও বলছে, সূর্যের এই ঝিমিয়ে পড়াটা এক স্বাভাবিক ঘটনা। সানস্পট-এর মধ্যে কিছু খুবই সক্রিয় দশা এবং একেবারে নিষ্ক্রিয় দশা- দুই দেখতে পাওয়া যায়। 

কাজেই পৃথিবীর উত্তাপহীন হওয়ার কোনো আশঙ্কা নেই। তবে নিষ্ক্রিয় দশাতে কী হচ্ছে, তার পর্যবেক্ষণও তো আর বন্ধ করা যায় না। আর সেই পর্যবেক্ষণের সময়েই এমন দৃশ্য সামনে এল। 

এই অসাধারণ ঘটনাটি দেখুন এখানে>>>

সূত্র: সায়েন্সটাইমস

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস