জর্ডানে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ওয়েবিনার

ঢাকা, শনিবার   ১৯ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৭ ১৪২৮,   ০৭ জ্বিলকদ ১৪৪২

জর্ডানে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ওয়েবিনার

জর্ডান প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৩৬ ২০ এপ্রিল ২০২১  

ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন জর্ডান রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবহান

ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন জর্ডান রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবহান

জর্ডানে মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ১৭ এপ্রিল বাংলাদেশ দূতাবাস এবং বিডা’র সহযোগিতা সংস্থা বেটার বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের (বিবিএফ) উদ্যোগে ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
 
ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবহান। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইথিওপিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম। প্রফেসর মাসুদ এ খান-এর সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিবিএফ গ্লোবালের আন্তর্জাতিক সমন্বয়ক আলিজে ইব্রাহিম। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র থেকে যুক্ত হন রফিক খান ও সাজ্জাদ রশিদ। যুক্তরাজ্য থেকে যুক্ত হন রহিমা মিয়া, মিশর থেকে সাইদুল হক সুমন, থাইল্যান্ড থেকে নাদিয়া হক, কাতার থেকে আজাদ আশরাফ। 

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ব্যারিস্টার মুশফিক রিজভি ও ব্যারিস্টার ওমর এইচ খান জয়।

আলোচনা সভার শুরুতেই দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা ও মুক্তিযুদ্ধে শহিদ ও নির্যাতিতা ২ লাখ মা ও বোনের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জর্ডানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবহান বলেন, ২৫ মার্চ ভয়াল কালরাত্রিতে পাকিস্তানি হানাদারদের নির্বিচারে গণহত্যা ও ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার পর বাংলাদেশ বহির্বিশ্বের কাছে একটি রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছিল। 

বিশেষ অতিথি রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম বলেন, বর্তমান সরকার প্রবাসীদের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে। অতি সম্প্রতি প্রবাসী বাংলাদেশি ইঞ্জিনিয়ারদের নিয়ে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রবাসিরা শুধুমাত্র রেমিটেন্স পাঠিয়ে নয় বরং সেই সাথে তাদের জ্ঞান, দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা দিয়েও দেশ গঠনে ভূমিকা রাখতে পারেন। 

সঞ্চালক প্রফেসর মাসুদ এ খান বলেন, আজকের বাংলাদেশ নিয়ে আমরা বহির্বিশ্বে গর্ববোধ করি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র নিরলস প্রচেষ্টায় হেনরি কিসিঞ্জারের কথিত তলাবিহিন ঝুড়ি থেকে আজ বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর মত মহানায়কের নেতৃত্বের কারণেই বাংলাদেশ স্বাধীন হতে পেরেছিল এবং তার স্বপ্নেরই প্রতিফলন আমরা দেখতে পাই আজকের বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায়।

ওয়েবিনারে দিবসটি নিয়ে একটি সংক্ষিপ্ত ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। উল্লেখ্য, জর্ডানস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত এই ওয়েবিনারটি দূতাবাসের ‘মুজিববর্ষ ওয়েবিনার’ সিরিজের ৭ম ওয়েবিনার। তবে বাংলাদেশ সরকারের বিনিয়োগ সংস্থা বিডা’র অংশীদার, বেটার বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন (বিবিএফ)-এর সাথে যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত প্রথম ওয়েবিনার। মুজিব বর্ষ ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে দূতাবাসের বছরব্যাপী আরো অনুষ্ঠান আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম