বাংলাদেশের মেয়ে ও ভারতের ছেলে, দুই বাংলার বাসিন্দার ভিডিও কলে বিয়ে

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৩ ১৪২৭,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বাংলাদেশের মেয়ে ও ভারতের ছেলে, দুই বাংলার বাসিন্দার ভিডিও কলে বিয়ে

প্রবাস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৫৭ ১৭ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৩:২৭ ১৭ অক্টোবর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সাত মাস আগে বিয়ের হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মহামারির জেরে এখনো স্বাভাবিক হয়নি ভিসা পরিষেবা এবং বিমান চলাচল। আর তাই উপায় ভিডিও কলেই বিয়ে করলেন এক নবদম্পতি। বাংলাদেশের মেয়ে ও ভারতের ছেলে তাই প্রযুক্তিই ছিল দুই বাংলার এই বাসিন্দাদের এক করার একমাত্র পথ।

বর মীর আবু তালেব ভারতের পূর্ববর্ধমান জেলার কাটোয়ার পাতাইহাট কাজিপাড়ার বাসিন্দা মীর আদম আলী ও পশুরা বিবির একমাত্র ছেলে। কনে শাহেরান ফতেমা বাংলাদেশের ঢাকা শহরের উত্তরার বাসিন্দা। অনুষ্ঠানে সামিল হন তাদের আত্মীয়-পরিজনরা। পাশাপাশি আবু তালেব ও শাহেরানের বিয়ের অনুষ্ঠানে সামিল ছিলেন কুয়েত নিবাসী শাহেরানের কয়েকজন আত্মীয়।

আদম আলী জানান, একসময় কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন ২৮ বছরের তরুণ মীর আবু তালেব। তার চিকিৎসার জন্য প্রায়ই ভেলোর যেতে হত। ২০১৭ সালের শেষের দিকে ছেলের কিডনি পরিবর্তন করতে হয়। ছেলেকে একটি কিডনি দিয়েছিলেন আদম আলী নিজেই। ভেলোরে সেই অস্ত্রপোচার হয়েছিল। আবু তালেব এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। 

আবু তালেব জানান, ভেলোরে তার চিকিৎসা চলার সময় শাহরান ফতেমার সঙ্গে তাদের প্রথম পরিচয়। শাহরিনের বাবা মুহাম্মদ আয়ুব কুয়েতে চাকরি করেন। এক আত্মীয়ের চিকিৎসার জন্য পরিবারের সঙ্গে ভেলোর গিয়েছিলেন শাহেরিন। আবু তালেবের সঙ্গে সেখানে প্রথম দেখাতেই ভালোলাগা। তারপর দুই পরিবারের মধ্যে দেখাশোনা করে আবু তালেব শাহেরিনের বিয়ে ঠিক হয়। 

মীর আদম আলী বলেন, আমার ছেলের বিয়ে এ বছর ফেব্রুয়ারি মাসে ঠিক হয়েছিল। কিন্তু তখন থেকেই আন্তর্জাতিক স্তরে বিমান চলাচল একপ্রকার বন্ধ। তারপর থেকে লকডাউন। পরিস্থিতি কবে স্বাভাবিক হবে কেউ জানি না। তাই এই ভার্চুয়াল বিয়ের সিদ্ধান্ত।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস