মামা শিক্ষককে সজল উৎসর্গ করলেন ‘দ্য টিচার’, প্রশংসিত অভিনেতা

ঢাকা, রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ৫ ১৪২৮,   ১০ সফর ১৪৪৩

মামা শিক্ষককে সজল উৎসর্গ করলেন ‘দ্য টিচার’, প্রশংসিত অভিনেতা

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:২২ ২ আগস্ট ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

এই সময়ের দর্শকপ্রিয় অভিনেতাদের একজন আব্দুন নূর সজল। শোবিজের শুরুটা মডেলিং দিয়ে। এরপর নাটকে নাম লিখিয়ে। অনবদ্য অভিনয় দিয়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য এক উচ্চতায়। এরপর শুধু এগিয়ে যাওয়ার গল্প। 

এবারের ঈদে প্রচারিত হওয়া বেশ কিছু নাটকে ভিন্নধর্মী চরিত্রে দেখা গিয়েছে সজলকে। রোমান্টিক চরিত্রের বাইরে ‘দ্য টিচার’ শিরোনামের একটি নাটকে তিনি অভিনয় করেছেন শিক্ষকের চরিত্রে। এটি পরিচালনা করেছেন মাবরুর রশীদ বান্নাহ। প্রচারের পর নাটকটি থেকে বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছেন তিনি। সেই সঙ্গে পাচ্ছেন প্রশংসামুখর আলোচনা।

‘দ্য টিচার’ নাটকের পোস্টার

এ প্রসঙ্গে অভিনেতা সজল বলেন, প্রতিটি মানুষের সুন্দর জীবনের পিছনে হাত রয়েছে শিক্ষকের। একজন শিক্ষকের শিক্ষাই কিন্তু আমরা আলোকিত হই। তারা যদি আমাদের ছোটবেলায় ভালোভাবে পড়ালেখা না করাতেন তাহলে আমরা আজকের অবস্থান তৈরি করতে পাড়তাম না। ভালো চাকরি কিংবা ভালোভাবে সমাজে বসবাস করতে পারতাম না। ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, অভিনেতা-অভিনেত্রী কিংবা আইনজীবি সব ক্ষেত্রে নেপথ্যের কারিগর শিক্ষক।

প্রতিটি মানুষের ক্যারিয়ার বিকাশে শিক্ষকের ভূমিকা অতুলনীয় উল্লেখ করে এ অভিনেতা আরো বলেন, শিক্ষকের এই ভূমিকা আমরা কখনো উপলব্ধি করি না। গল্পটি যখন শুনি তখন ভীষণ ভালো লাগে। এমন একজন শিক্ষককে আমার জীবনে পেয়েছিলাম। তাকে আমি মামা বলে ডাকতাম। হাতের লেখা থেকে শুরু করে বিবিএ পর্যন্ত তিনি আমার পাশে ছিলেন।

তিনি বলেন, আমার ওই শিক্ষক মামাকে উৎসর্গ করে কাজটি করেছি। আমার ক্যারিয়ারে তার অপরিসীম অবদান রয়েছে। আমি তার মতো করে চরিত্রটি ধারণ করার চেষ্টা করেছি। বার্ষিক পরীক্ষার সময় আমি রেজাল্ট ভালো করলে মামা আমাকে নাটক দেখতে নিয়ে যেতেন। সেই লোভেও পরীক্ষায় রেজাল্ট ভালো করতাম।

যোগ করে সজল বলেন, দর্শক নাটকটি দেখে তাদের ভালোলাগা জানাচ্ছেন। ভীষণ সাড়া পাচ্ছি। সহকর্মীরাও কাজটি দেখে খুব প্রশংসা করছেন। সবাই পজিটিভভাবে নিয়েছে। এতো ভারি একটি গল্প ঈদের সময় মানুষ পছন্দ করতে পারে সেটা ‘দ্য টিচার’ না দেখলে বুঝতাম না।’

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস