এফডিসিতে জমকালো আয়োজনে তিন ছবির মহরত অনুষ্ঠিত

ঢাকা, শনিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১,   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৭,   ১৪ রজব ১৪৪২

এফডিসিতে জমকালো আয়োজনে তিন ছবির মহরত অনুষ্ঠিত

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৫৫ ২১ জানুয়ারি ২০২১  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

‘ভালোবাসলেই ঘর বাধা যায় না’, ‘পাসওয়ার্ড’, ‘বীর’ সহ ৯টি চলচ্চিত্র প্রযোজনা করেছেন মো. ইকবাল। নানা কারণে আলোচনায় ছিলেন বিভিন্ন সময়ে। ঢালিউড ইন্ডাস্ট্রির এ প্রভাবশালী প্রযোজক এবার পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছেন। নতুন বছরের শুরুতেই ঘোষণা দিয়েছেন তিনটি ছবির ‘ফাইটার’, ‘রিভেঞ্জ’ ও ‘গুলশানের চামেলী’। সবগুলোরই নায়ক হিসেবে থাকছেন রোশান। 

বুধবার (২০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় এফডিসির জহির রায়হান মিলনায়তনে জমকালো এক মহরত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ছবিগুলোর নাম ঘোষণা দেন। অতিমারি বিপর্যস্ত নতুন বছরে হয়ে গেল নতুন ছবি তিনটির শুভ মহরত। দীর্ঘদিন পর এটিই জমকালো মহরত অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন গুণী নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহান। এ সময় মহরত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রযোজক নেতা খোরশেদ আলম খসরু, সামছুল আলম, আলিমুল্লাহ খোকন, কালাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিপু, ওমর সানী, শিবা শানু, নাদের খান, অমিত হাসান, রোশান, শাহ আলম কিরন, সেলিম খান, আজিজুল হাকিম সীমান্ত, শিরিন শিলা ও এল আর খান সীমান্ত। উপস্থিত সবাই করোনার এই দূর সময়ে ইকবালের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান।

কেন প্রযোজনা ছেড়ে পরিচালনায়? জবাবে ইকবাল বলেন, আমি যখন প্রযোজনা শুরু করি তখন থেকেই ইচ্ছা ছিল পরিচালনায় আসার। এতদিন ধরে নিজেকে প্রস্তুত করেছি। আর প্রযোজনা তো ছাড়ছি না। আমার প্রযোজনা শুরু ২০০৯ এর দিকে। তখন থেকে আমি কাজী হায়াত, শাহীন সুমন, জাকির হোসেন রাজু, মালেক আফসারীর মত পরিচালকদের দিয়ে ছবি বানিয়েছি। তাদেরকে প্রযোজনা করার সময় একটা শর্ত দিয়েছিলাম আমাকে তাদের সঙ্গে সহকারী পরিচালক হিসেবে রাখতে হবে। আমি এত বছর ধরে তাদের থেকে দেখে শিখেছি। এ গল্পগুলো সব আমার নিজের। এগুলো নিয়ে আমার অনেক স্বপ্ন। চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করব।

পরিচালক ইকবাল আরো বলেন, আমার এতো দূর আসার পেছনে একমাত্র অবদান নায়ক শাকিব খানের। তার জন্য আমি আজ এখানে। সব সময় সততার সঙ্গেনীতি নিয়ে চলার চেষ্টা করি। এই তিনটি ছবি দেশে আলোড়ন তৈরি করবে। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।

এক বার্তায় শাকিব খান বন্ধু ইকবালের নতুন পথচলায় শুভ কামনা জানিয়ে তিনি বলেন, ইকবাল ভাই আমার খুবই ঘনিষ্ট একজন মানুষ। তার জন্য সব সময় শুভ কামনা। তিনি প্রযোজক হিসেবে সফল এবার পরিচালক হিসেবে যেন সফল হয় সেই কামনা করি।

রোশান ছবি তিনটিতে সম্পৃক্ত হওয়া নিয়ে বলেন, ইকবাল ভাই গুলশানের এক রেস্টুরেন্টে দেখা করতে বলেন আমাকে। সেখানে তিনি ছবিগুলোর গল্প শুনান। এরপরে বলেন, রোশান তিনটি ছবিতেই নায়ক হিসেবে তোমাকেই আমার লাগবে। আমি কৃতজ্ঞ তার মত একজন প্রযোজক তার প্রথম পরিচালনায় আমাকে ভেবেছেন। তিনটি ছবির গল্পই বেশ সুন্দর। এর মধ্যে ‘ফাইটার’ অ্যাকশনধর্মী আর ‘গুলশানের চামেলী’র গল্প তো অসাধারণ। এ ধরনের গল্প সচরাচর দেখা যায় না।

আগামী মাস থেকে ‘ফাইটার’-এর শুটিং শুরু হবে। এরপর ‘রিভেঞ্জ’ ও ‘গুলশানের চামেলী’র শুটিং হবে। ‘ফাইটার’ মের্সাস জে প্রোডাকশন, ‘রিভেঞ্জ’ অনুরাগ ট্রেডার্স এবং ‘গুলশানের চামেলী’ সুনান মুভিজ প্রযোজনা করছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস