আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ হলেন অনন্য মামুন

ঢাকা, রোববার   ০৭ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ২২ ১৪২৭,   ২২ রজব ১৪৪২

আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ হলেন অনন্য মামুন

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:২৬ ১৬ জানুয়ারি ২০২১  

অনন্য মামুন

অনন্য মামুন

সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ‘নবাব এলএলবি’ সিনেমায় অশ্লীলতা এবং পুলিশকে হেয় করার কারণে কারগারে আছেন ছবিটির পরিচালক অনন্য মানুন। পর্নগ্রাফি আইনে দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার হয়েছিলেন তিনি। পরে আদালতে হাজির করা হলে তাকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেয়া হয়। বর্তমানে তিনি জামিনে আছেন।

এ ঘটনায় পরিচালক সমিতির ভাবমূর্তি ব্যাপকভাবে ক্ষুণ্ণ হয়ে বলে মনে করছেন সিনেমাপাড়ার একাধিক পরিচালক। ফলে অনন্য মামুনকে নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছেন অনেকে।

এবার সেই ধারাবাহিকতায় আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ হলেন পরিচালক অনন্য মামুন। তাকে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। তার পরিচালক সমিতির সদস্যপদ স্থায়ীভাবে বাতিল করা হয়েছে।

১৬ জানুয়ারি (শনিবার) কার্যনির্বাহী বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এদিন বিকেলে পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আজকে (শনিবার) আমরা বৈঠকে বসেছিলাম। অনন্য মামুনের সদস্যপদ স্থায়ীভাবে বাতিল করা হয়েছে। পরিচালক সমিতির নির্বাহী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।

অনন্য মামুন সমিতির সুনাম ক্ষুণ্ণ করেছেন উল্লেখ করে খোকন আরো বলেন, এর আগেও তার নামে অভিযোগ ছিল। তখন তার পদ সাময়িক স্থগিত করা হয়েছিল।

অনন্য মামুনের মামলার ব্যাপারে আদালতে কোনো সিদ্ধান্ত দেয়নি। এ অবস্থায় তার পদ বাতিল কতটুকু যৌক্তিক হবে? উত্তর পরিচালক সমিতির এ নেতা বলেন, আদালতের সঙ্গে এটার সর্ম্পক নাই। আমাদের যা মান সম্মান যাওয়ার চলে গেছে। ওই ছবির (নবাব এলএলবি) পরিচালক তো অনন্য মামুন, এটার তো প্রমাণ আছে। পরিচালক অনন্য মামুন গ্রেফতার- এমন নিউজ হয়েছে তো? তাতেই যথেষ্ট। আর কিছু লাগবে না।

এর আগে, ২০১৭ সালে মানবপাচারের অভিযোগে মালয়েশিয়ায় গ্রেফতার হয়েছিলেন পরিচালক অনন্য মামুন। ওই সময় তার সদস্যপদ সাময়িক স্থগিত করেছিল পরিচালক সমিতি। পরে মুচলেকা দিয়ে ছাড় দেয়া হয়েছিল তাকে। মুচলেকায় মামুন উল্লেখ করেছিলেন, পরবর্তীতে শৃঙ্খলা বিরোধী কোনো কাজ করলে সমিতি তাকে আজীবন নিষিদ্ধ করলেও তার কোনো আপত্তি থাকবে না।

চিত্রনাট্যকার হিসেবে ২০০০ সালে ফিল্ম ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন অনন্য মামুন। ২০১২ সালে পরিচালনায় নামেন তিনি। এরপর নির্মাণ করেছেন প্রায় দশটি সিনেমা। যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নির্মাণে প্রতারণার অভিযোগ আছে তার নামে। এছাড়া ভুয়া শিক্ষাসনদ দিয়ে পরিচালক সমিতিতে সদস্যপদ নেয়া, অপেশাদারিত্বের আচরণের অভিযোগ শোনা যায় অনন্য মামুনকে ঘিরে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস