হাইকোর্ট থেকে সুরক্ষা দেয়া হচ্ছে কঙ্গনা ও তার বোন রাঙ্গোলিকে

ঢাকা, রোববার   ১৭ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৩ ১৪২৭,   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

হাইকোর্ট থেকে সুরক্ষা দেয়া হচ্ছে কঙ্গনা ও তার বোন রাঙ্গোলিকে

বিনোদন ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:০৯ ২৬ নভেম্বর ২০২০  

কঙ্গনা ও রাঙ্গোলি

কঙ্গনা ও রাঙ্গোলি

বলিউডের বহুল সমালোচিত অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। সব সময়ই তিনি কোনো না কোনো বিষয় নিয়ে সমালোচিত হন। এবারো এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। ধর্মবিরোধী কথা বলায় মুম্বাই পুলিশ আগামী ৮ই জানুয়ারি কঙ্গনা রানাউত ও তার বোন রাঙ্গোলি চান্ডেলকে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছেন।

মঙ্গলবার বম্বে হাইকোর্ট এই নির্দেশ দিয়েছে। তবে এই সময়ের মধ্যে তাদের গ্রেপ্তার করা যাবে না বলেও নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন পোস্ট মারফৎ ‘সাম্প্রদায়িক বিভেদ এবং ধর্মীয় উত্তেজনা’ তৈরির অভিযোগে গত অক্টোবর মাসে মুম্বাই পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে। এরপর তিন বার তাদের সমন পাঠানো হলেও তারা সেখানে উপস্থিত হননি। এদিকে, আইনজীবী মারফৎ কঙ্গনা ও তার বোন রাঙ্গোলি জানান, ভাইয়ের বিয়ে উপলক্ষে ব্যস্ত থাকায় তারা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আসতে পারেননি। কিন্তু আদালত এই যুক্তি গ্রহণ করেনি।

বিচারপতিরা জানিয়েছেন, যা-ই কারণ থাকুক সমনকে সম্মান জানাতে হবে। এরই পাশাপাশি হাইকোর্ট অবশ্য কঙ্গনা ও তার বোনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে। বিচারপতি শিন্ডে পুলিশের উদ্দেশে প্রশ্ন করেন, আপনারা কি দেশের নাগরিকদের সঙ্গে এই রকম আচরণ করেন?

এর পর বিচারপতিরা কঙ্গনা ও রাঙ্গোলিকে জানান, আমরা আপনাদের সময় দিচ্ছি। জানুয়ারি মাস পর্যন্ত আপনাদের সময় দেয়া হলো। ৮ জানুয়ারি আপনাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আসতে হবে। তার আগে পুলিশ যাতে আপনাদের গ্রেপ্তার না করে সেই সুরক্ষা আমরা দেব।

পাশাপাশি হাইকোর্ট মুম্বাই পুলিশকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন যে, তারা কেন দায়ের করা এফআইআর-এ রাষ্ট্রদ্রোহ অভিযোগের আবেদন করেছেল? যা কিনা ভিত্তিহীন।

অন্যদিকে মামলার শুনানি করা বিচারপতি এস এস শিন্ডে এবং বিচারপতি এম এস কর্ণিকের হাইকোর্ট বিভাগ তাদের আইনজীবী রিজওয়ান সিদ্দিকিকে নির্দেশ দিয়েছেন যে, তার ক্লায়েন্টদের নির্দিষ্ট সময়ে অবশ্যই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হাজির হতে হবে এবং বান্দ্রার তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে তাদের বক্তব্য রেকর্ড করতে হবে। ৮ জানুয়ারি রাত ১২ টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত এই জিজ্ঞাসাবাদ চলবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ