‘নো এন্ট্রি জোনে’ অঞ্জলি, আইনি নোটিশ পেতে পারেন সৃজিত-মিথিলা

ঢাকা, রোববার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ২২ ১৪২৭,   ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

‘নো এন্ট্রি জোনে’ অঞ্জলি, আইনি নোটিশ পেতে পারেন সৃজিত-মিথিলা

বিনোদন ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:৪২ ২৫ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১২:৪৫ ২৫ অক্টোবর ২০২০

সৃজিত-মিথিলা, নুসরত-নিখিল

সৃজিত-মিথিলা, নুসরত-নিখিল

‘নো এন্ট্রি জোনে’ ঢুকে অঞ্জলি দিয়ে আইনি নোটিশ পেতে পারেন সৃজিত-মিথিলা। শুধু তারাই নন এ তালিকায় আছেন সাংসদ-অভিনেত্রী নুসরত জাহান, সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, নুসরত-সৃজিতরা অঞ্জলি দিয়েছেন হাইকোর্ট নির্ধারিত মণ্ডপের ‘নো এন্ট্রি জোনে’। সেখান থেকেই জন্ম হয়েছে বিতর্কের। কারণ, কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের দুই বিচারপতি স্পষ্ট নির্দেশ দিয়েছিলেন। মণ্ডপের চারদিকে ব্যারিকেড করে তৈরি করতে হবে ‘নো এন্ট্রি জোন’। সেই ‘নিষিদ্ধ’ এলাকায় পূজার উপাচারের প্রয়োজনে উদ্যোক্তাদের তরফে আদালতের ঠিক করে দেয়া সংখ্যার কয়েকজন ঢুকতে পারবেন বলে নির্দেশ দিয়েছিল আদালত।

আদালতের ‘নির্দেশ’ ভেঙে নুসরতদের ওই মণ্ডপে ভিড় করার ঘটনাকে আদালতে ‘হাতিয়ার’ করতে চলেছেন পূজা মামলার আইনজীবীরা। মামলার আবেদনকারীর আইনজীবীদের বক্তব্য- আদালতের নির্দেশ সবার জন্যই প্রযোজ্য। সেক্ষেত্রে জনপ্রতিনিধিদের নিয়ম মানার ক্ষেত্রে আরো ইতিবাচক’ ভূমিকা নেয়া প্রয়োজন। কিন্তু বাস্তবে তা দেখা যায়নি।

লক্ষ্মীপূজার পর আদালতের নির্দেশ কতটা পালন করা হল, সে বিষয়ে আদালতে হলফনামা জমা দিতে হবে রাজ্যকে। পূজা মামলার সঙ্গে যুক্ত আইনজীবীদের তরফে ইঙ্গিত মিলছে যে, পরবর্তী শুনানির সময় এদিনের অঞ্জলি দেয়ার ঘটনাকে হাতিয়ার করতে পারেন মামলাকারী। তবে এখনই মামলাকারী নুসরত, সৃজিতদের আইনি নোটিশ পাঠাবেন কি না, তা নিয়ে কোনো নিশ্চিত জবাব পাওয়া যায়নি। 
 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস