আমি নিজেও একজন ভিকটিম: মনিরা মিঠু

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৮ ১৪২৭,   ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আমি নিজেও একজন ভিকটিম: মনিরা মিঠু

বিনোদন ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪৮ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৭:৫০ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

মনিরা মিঠু

মনিরা মিঠু

করোনাকালীন এই সময়েও টানা শুটিং করছেন টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মনিরা মিঠু। গতকাল পর্যন্ত টানা সাত দিন ‘ফ্যামিলি ক্রাইসিস’ ধারাবাহিকটির শুটিং করেছেন এ অভিনেত্রী। আজ আবার নির্মাতা মজিবুল হকের একটি নাটকের জন্য কাজ শুরু করবেন।

করোনাকালীন এই সময়ে টানা শুটিং অনেকেই নিরাপদ মনে করেন না। এরমধ্যে মনিরা মিঠু ব্যতিক্রম। বিষয়টি নিয়ে তিনি বলেন, আমাকে সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করতে হচ্ছে। শুধু পরিচালকদের কথা ভেবেই এমন করছি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এছাড়া এখানে আমি একা কিছু করতে পারি না। সবার সঙ্গে শিডিউল মিলিয়েই কাজ করতে হচ্ছে। অন্যরা যখন শিউিউল দেবেন তখন আমি না থাকলে পরিচালক অনেক সমস্যার মুখে পড়বেন। আমার জন্য কারো ক্ষতি হোক তা চাই না।

এই সময়ে ধারাবাহিক নাটক দর্শক ধরে রাখতে পারে না বলে কেউ কেউ মন্তব্য করেন। আবার অনেক শিল্পী বলেন ধারাবাহিক নাটকে শিল্পীদের চরিত্রে সমন্বয় থাকে না। এর কারণ কী মনে করেন? মনিরা মিঠু বলেন, এখন সবাই ভিউ আছে এমন শিল্পীদের নিয়ে কাজ করতে চায়। যার কারণে একজন শিল্পীর হাতে অনেক কাজ থাকে। এই কারণে অনেক সময় ধারাবাহিক নাটকে শিল্পীর চরিত্র ও গল্পের বাঁক বদল হয়ে যায়।

আপনিও তো ইউটিউব ভিউয়ের দৌড়ে এগিয়ে থাকা একজন শিল্পী। এ কথার জবাবে তিনি বলেন, আমি নিজেও একজন ভিকটিম। অনেকেই আমার শিউিউল চায়। কিন্তু দিতে পারছি না। এজন্য অনেকে আবার আমাকে নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করে। আমার ভিউ হচ্ছে বলেই তারা আমাকে নিয়ে কাজ করতে চাচ্ছে। অথচ অনেক গুনী শিল্পী কাজ পাচ্ছে না।

এর থেকে উত্তরনের কথাও বলেন এই অভিনেত্রী। তার ভাষ্য, শুধু ভিউ হচ্ছে এই ধরনের শিল্পীদের নিয়ে কাজ করতে হবে এমন চিন্তা থেকে সরে আসা প্রয়োজন। আমাদের দক্ষ অনেক শিল্পী আছে, তাদেরও কাজের সুযোগ করে দিতে হবে।

বর্তমানে এই অভিনেত্রী ‘গোলমাল’, ‘চিটিং মাস্টার’, চাঁন বিরানি’, ‘ভেজাইল্লা গ্রাম’ ও ‘পরিবার’ শিরোনামের ধারাবাহিকগুলোতে কাজ করছেন। তাছাড়া টিভি নাটকের বাইরে এই অভিনেত্রী চলচ্চিত্রেও অভিনয় করছেন। ছবিগুলো হলো- চয়নিকা চৌধুরীর ‘বিশ্ব সুন্দরী’, প্রসূন রহমানের ‘ঢাকা ড্রিম’ ও হিরনের ‘আদম’।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ