ইফতারে খোলা থাকছে জাবির ক্যাফেটেরিয়া

ঢাকা, শনিবার   ০২ জুলাই ২০২২,   ১৮ আষাঢ় ১৪২৯,   ০২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

ইফতারে খোলা থাকছে জাবির ক্যাফেটেরিয়া

জাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২৬ ১৮ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ১৬:৩০ ১৮ এপ্রিল ২০২২

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়া

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়া

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীদের চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ইফতারের সময় কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়া চালু রেখে খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথমবারের মতো এ বছর রমজানে ক্যাফেটেরিয়াতেই ইফতার করতে পারছেন শিক্ষার্থীরা। এর আগে কোনো বছরেই রমজান মাসে কখনো বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়া খোলা ছিলো না বলে জানা গেছে।

এ দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাফেটেরিয়া খোলার পর ইফতারের খাবারের দামও কমানো হয়েছে। ক্যাফেটেরিয়া চালু রাখার এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্টরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়া পরিচালিত হয় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) আওতায়। জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের পরিচালক ও পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ আলমগীর কবির বলেন, গত কয়দিন কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ার ইফতারের মূল্য তালিকা পর্যালোচনা করে আমরা নতুন মূল্য তালিকা নির্ধারণ করেছি। যেহেতু প্রথমবারের মতো ক্যাফেটেরিয়ায় ইফতার চালু করেছি তাই সবার সহযোগিতা কামনা করছি। আমার পক্ষে যদি আরো কিছু করার থাকে আমি চেষ্টা চালিয়ে যাব।

ইফতারের সময় ক্যাফেটেরিয়ায় পাওয়া যাবে ছোলা, মুড়ি, বেগুনি, আলুর চপ, খেজুর, পেয়াজু, শরবত। এর মধ্যে ছোলা আট টাকা, মুড়ি চার টাকা, বেগুনি পাঁচ টাকা, আলুর চপ চার টাকা, খেজুর (৩ পিছ) চার টাকা, পেয়াজু চার টাকা এবং শরবত চার টাকা।

এ ব্যাপারে অধ্যাপক আলমগীর কবির বলেন, গত পঞ্চাশ বছরের ইতিহাসে ক্যাফেটেরিয়ায় ইফতার সামগ্রী বিক্রির আয়োজন হয়নি। সাধারণত রমজান মাসজুড়ে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় ক্যাফেটেরিয়াও বন্ধ থাকে। প্রথমত, আমরা ভেবেছিলাম ৮ কিংবা ১০ রোজার পর হয়তো ক্যাম্পাস বন্ধ হয়ে যাবে। তাই ক্যাফেটেরিয়া বন্ধ রেখেছিলাম। কিন্তু ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত খোলা থাকার সিদ্ধান্ত গৃহীত হবার পর শিক্ষার্থীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে েউপাচার্য মহোদয়ের নির্দেশে ক্যাফেটেরিয়া খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি আরো বলেন, ক্যাফেটেরিয়ার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আপত্তি থাকা সত্ত্বেও শিক্ষার্থীদের সুবিধা বিবেচনা করে এই ইফতার সার্ভিস অব্যাহত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তারাও সারাদিন রোজা রেখে শিক্ষার্থীদের সেবায় কাজ করবেন। সেক্ষেত্রে, যেকোন ধরনের ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ করছি।

এ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী আল আমিন মুরাদ বলেন, রমজানে বন্ধুদের সঙ্গে একসঙ্গে ইফতার করার জন্য ক্যাফেটেরিয়া অন্যতম পছন্দের জায়গা। খাবারের দামও কিছুটা কমিয়েছে। যা নাগালের মধ্যেই। এটি আমাদের ভোগান্তি অনেক কমিয়ে দিয়েছে। এর জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সাধুবাদ জানাই।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম

English HighlightsREAD MORE »