পড়াশোনায় একঘেয়েমি দূর করার উপায়

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ মে ২০২২,   ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

পড়াশোনায় একঘেয়েমি দূর করার উপায়

শিক্ষাঙ্গন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৪২ ২৭ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৭:০৫ ২৭ জানুয়ারি ২০২২

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মা বাবা দিনরাত বলে পড়। না পড়লে রেজাল্ট ভালো হবে, আরো কত কি। কিন্তু পড়াশোনায় কিছুতেই মন বসাতে পারছেন না। পড়াশোনা হয়ে গেছে একঘেয়েমি। পড়াশোনা এই এক ঘেয়ে ঘোর কাটাতে চিন্তাবিদরাও ভেবেছেন অনেক। পড়াশোনায় একঘেমেয়ি কাটাতে অনুসরণ করতে পারেন টিপসগুলো।

জায়গা পরিবর্তন
আমাদের স্মৃতির সঙ্গে জায়গার একটা ভালো যোগাযোগ আছে। এ সম্পর্কটা কাজে লাগাতে পারেন পড়ার বেলায়ও। সব পড়া লাইব্রেরি বা রিডিংরুমের আরামদায়ক চেয়ারে না বসে মাঝেমধ্যে স্কুলের বারান্দা, ব্যালকনি, ছাদের দোলনা এগুলোকেও কাজে লাগাতে পারেন।

আড্ডার ছলে পড়া
মাঝেমধ্যে নিজেকে নিয়ে গর্ব হতেই পারে। মনে হতে পারে বন্ধুদের চেয়ে তো আমি অনেক বেশি বুঝি। তাদের সঙ্গে পড়া নিয়ে আলাপ করার কিছু নেই। এটা ভুল। বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডার ছলে গ্রুপ স্টাডি করলে দেখা যাবে, সৃজনশীল চিন্তার দুয়ার খুলে যাচ্ছে। বন্ধুর উপকার তো হলোই, আবার দেখা গেল কোনো একটা বিষয় যা আপনি জানতেন না, সেটাও জানতে পারছেন। 

গড্ডির ভেতর আটকে না থাকা
অনেকেই আছে নিজেকে একটা গড্ডির মধ্যে আটকে ফেলতে পছন্দ করে। যেমন- শোয়াইব হয়তো ভাবে, আমি তো রাতেই পড়ি, আবার আশিক হয়তো মনে করে সে কোনো কিছু বেশি না পড়েই বুঝে ফেলার ক্ষমতা রাখে। এমন আরো অনেক ধরণ পাবেন চিন্তা করলে। তবে স্কুল-কলেজে পড়াশোনার ক্ষেত্রে নিজেকে কোনো একটি ভাগে ফেলে না দেয়াই ভালো। পড়ার স্টাইল বা চিন্তার ধরনে যত বৈচিত্র্য আনতে পারবেন ততই সহজ হয়ে আসবে কঠিন সব সূত্র।

বিরতি দিয়ে পড়া
আগে মনে করা হতো কোনো একটা বিষয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা পড়তে থাকলে সেটার ওপর রীতিমতো পণ্ডিত হয়ে যাবেন। ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার গবেষণায় দেখা গেছে, খানিকটা বিরতি দিয়ে এটা-ওটা পড়লেই মস্তিষ্ক সচল থাকে বেশি। একটা বিষয়ে দারুণ দক্ষ হতে গেলেও কিন্তু অন্য বিষয়ের ওপর খানিকটা হলেও দখল থাকা চাই। যেমন ভালো অ্যাপ ডেভেলপার হতে গেলে শুধু প্রগ্রামিং জানলেই তো হবে না, বাস্তব জীবনের মানুষের নানামুখি সমস্যা নিয়েও ভাবতে হবে।

বুঝে পড়ুন
অনেকেই আছে যাদের কোন কিছুর সংজ্ঞা জিজ্ঞেস করলে হুবহু বইয়ের সংজ্ঞা গরগর করে বলে দিতে পারে। কিন্তু ব্যাখ্যা করতে বললে চুপ করে থাকে। তাই মুখস্ত করা বন্ধ করে পুরো টপিকস বুঝার চেষ্টা করতে হবে। কারণ মুখস্ত ১০ বার করলে ১০ বার ভুলবেন কিন্তু একবার ভালো করে বুঝে নিতে পারলে আর ভুলবেন না।

সূত্র: হাফিংটন পোস্ট

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম

English HighlightsREAD MORE »