শাবিপ্রবিতে অনশনের ৯৬ ঘণ্টা: যোগ দিলেন আরো ৩ শিক্ষার্থী

ঢাকা, বুধবার   ১৮ মে ২০২২,   ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

শাবিপ্রবিতে অনশনের ৯৬ ঘণ্টা: যোগ দিলেন আরো ৩ শিক্ষার্থী

শাবিপ্রবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:২৩ ২৩ জানুয়ারি ২০২২  

অনশনে অসুস্থ শিক্ষার্থীরা।

অনশনে অসুস্থ শিক্ষার্থীরা।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবিতে অনশনের ৯৬ ঘণ্টা অতিবাহিত হয়েছে। এরইমধ্যে গণ অনশনে যোগ দিলেন আরো তিনজন শিক্ষার্থী।

রোববার (২৩ জানুয়ারি) দুপুর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা জানান, আমাদের ২৪ জন শিক্ষার্থীর আমরণ অনশনের ৯৬ ঘণ্টা অতিবাহিত করলেও উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ এখনো পদত্যাগ না করে স্বপদে বহাল থেকেছেন। তাই আমরা সব শিক্ষার্থী সিদ্ধান্ত নিয়েছি, ভিসির পদত্যাগের ঘোষণা না আসা পর্যন্ত গণঅনশন চালিয়ে যাবো। এরইমধ্যে আরো তিনজন শিক্ষার্থী গণঅনশনে যোগ দিয়েছেন। 

শিক্ষার্থীরা আরো জানান, আমাদের অনশনরত শিক্ষার্থীদের অবস্থা খুবই খারাপ। দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তারা কোনোভাবেই অনশন ভাঙতে চাচ্ছে না। অনশনের দ্বিতীয় দিনে একজনের বাবা হার্ট অ্যাটাক করায় তাকে বাসায় পাঠিয়ে দেই। আরেকজন শিক্ষার্থীর নানা মারা যাওয়ার পরও তিনি অনশন ভাঙেননি। ভিসি পদত্যাগ করলে অনশন ভাঙবেন বলে জানান তারা।

আলোচনা প্রসঙ্গে শিক্ষার্থীরা বলেন, গতকাল থেকে আমরা শুনতেছি। আমরা না কি শিক্ষামন্ত্রীর সাথে আলোচনা করতে চাই না। আমরা পরিষ্কার বলে দিতে চাই যে এ ধরনের কথা মিথ্যা ও বানোয়াট। আমরা সব সময় আলোচনা করতে প্রস্তুত। আলোচনার দরজা সব সময় আমরা খোলা রেখেছি।

এদিকে গতকাল শনিবার মধ্যরাতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনির সাথে ভার্চুয়াল ফোনালাপ করেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা তাদের দাবিতে অনড়। বৈঠক ফলপ্রসূ হয়নি। আজ রোববার দুপুরে আবার আলোচনা হবে বলে জানান তারা। এসময় শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষার্থীদের লিখিত অভিযোগ দেওয়ার জন্য বলেন পাশাপাশি তাদের অনশন ভাঙাতে অনুরোধ করেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) বেগম সিরাজুন্নেসা হলের অব্যবস্থাপনা নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রথমে হল প্রভোস্ট সহযোগী অধ্যাপক জাফরিন আহমেদ লিজার পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন শুরু করে ঐ হলের ছাত্রীরা। ছাত্রীদের আন্দোলনের দ্রুত সমাধান না হওয়ায় গণ আন্দোলনে রুপ নেয়। এক পর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনে ভিসিকে অবরুদ্ধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ অনুযায়ী পরে ভিসির মদদে পুলিশ শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালায়। ভিসির এমন সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। এর জেরে শিক্ষার্থীরা ভিসির পদত্যাগ দাবি করে। গত বুধবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভিসিকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগের আল্টিমেটাম দেয়। ঐ সময়ে ভিসি পদত্যাগ না করায় শিক্ষার্থীরা অনশন শুরু করে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম

English HighlightsREAD MORE »