শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধে বাধ্য হওয়ার কারণ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

ঢাকা, রোববার   ২২ মে ২০২২,   ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ২০ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধে বাধ্য হওয়ার কারণ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৩২ ২১ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ২০:৩৮ ২১ জানুয়ারি ২০২২

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ফাইল ছবি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ফাইল ছবি

নতুন করে দেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের কারণ জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, আমরা যে খুশি মনে সিদ্ধান্তটা নিয়েছি তা মনে করার কোনো কারণ নেই। আমরা বাধ্য হয়েই সিদ্ধান্তটা নিয়েছি। স্বাস্থ্যবিধি প্রত্যেকে মানলে এই অবস্থা হতো না। আমরা পরিস্থিতি সার্বক্ষণিক নজরে রাখছি, যখনই উন্নতি হবে তখনই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে।

শুক্রবার বিকেলে মতিঝিলে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, হঠাৎ করেই শিশুদের মধ্যে সংক্রমণ বেড়ে যাচ্ছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কারণে সংক্রমণটা বেড়ে যেন না যায় সে জন্যই বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। পরিস্থিতি বিবেচনা করে পরবর্তী সময়ে সিদ্ধান্ত নেব। যেখানে যেভাবে অনলাইনে ক্লাস নেয়া সম্ভব আমরা নেব।

তিনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এবং শিক্ষা অফিসের কার্যালয় খোলা থাকবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সেখানে কাজ চলবে। আমাদের টিকাদান কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।  যতদ্রুত সম্ভব টিকা দেওয়া হবে।

                     আরো পড়ুন: বন্ধ কোচিং সেন্টারও

এর আগে সকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এই নির্দেশনা ২১ জানুয়ারি থেকেই কার্যকর হবে এবং ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বহাল থাকবে। এছাড়া আরো চারটি নির্দেশনা জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

মঙ্গলবার  রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ডিসি সম্মেলনের অধিবেশন শেষে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যদি করোনার সংক্রমণ বাড়ার কারণে ক্লাস নেয়া সম্ভব না হয়, সেক্ষেত্রে অনলাইন ক্লাসে যেতে হবে। আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। ২-১ দিনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সঙ্গে বৈঠকে বসবো।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ

English HighlightsREAD MORE »