‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হলেই সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে দূর করা সম্ভব’

ঢাকা, বুধবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২৫ ১৪২৮,   ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হলেই সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে দূর করা সম্ভব’

রাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:২৯ ২১ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৮:২৯ ২১ অক্টোবর ২০২১

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বেলা ১১টায় প্যারিস রোডে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের মানববন্ধনে ভিসি এসব কথা বলেন

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বেলা ১১টায় প্যারিস রোডে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের মানববন্ধনে ভিসি এসব কথা বলেন

রাজশাহী বিশবিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেছেন, ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার। রাষ্ট্রের সঙ্গে ধর্মের মিল করা যাবে না। ধর্মীয় যত উগ্রবাদ আসবে, প্রগতির চাকা তত উল্টো দিকে ঘুরবে। এ সাম্প্রদায়িকতা মোকাবেলায় আমরা শুধু রাষ্ট্রের উপর নির্ভর করব না। আমরা সবাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হলেই এই অপশক্তিকে দূর করতে পারবো। ক্যাম্পাসে মধ্যে কোন ধরনের সাম্প্রদায়িকতা ছড়ালে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিবো। একই সঙ্গে ক্যাম্পাস থেকেই সাম্প্রদায়িকতার শক্তি উৎপাটন শুরু করবো।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বেলা ১১টায় প্যারিস রোডে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের ব্যানারে আয়োজিত এক মানববন্ধনে ভিসি এসব কথা বলেন। এসময় হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতিমা ও মন্দির ভাঙচুর এবং বাড়িতে অগ্নিসংযোগে জড়িতদের বিচারের দাবি জানানো হয়।

কর্মসূচিতে ভিসি আরো বলেন, সাম্প্রদায়িকতার বীজ আমাদের মাঝেই আছে। আর প্রাঞ্জল বক্তব্যে এই বীজ উপড়ে ফেলা যাবে না। আমাদের জীবনযাপনের মধ্যে অসাম্প্রদায়িকতা, ধর্ম নিরপেক্ষতার চর্চা করতে না পারলে কখনোই এটা থেকে বের হতে পারবো না। সাম্প্রদায়িকতা দূর করতে হলে আমাদের দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে হবে। আমাদের বাড়িতে, মননে ও পাঠ্য বইয়ে অসাম্পদায়িকতার চর্চা করতে হবে।
 
মানববন্ধনে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক মলয় কুমার ভৌমিক বলেন, এই একবিংশ শতাব্দীতে আমরা রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক জীবনে এক ভিন্ন উপসর্গ লক্ষ্য করছি। আমরা বলছি আমরা এগিয়ে যাচ্ছি, কিন্তু না। ভারত উপমহাদেশসহ বিশ্বের উন্নত দেশেও ধর্ম, বর্ণ, জাতি, আঞ্চলিকতা এসব বিষয়কে উস্কে দিয়ে ফায়দা লোটার চেষ্টা করা হচ্ছে। সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা আমরা আমাদের তরুণ যুব সমাজকে তৈরি করতে পারছি না। সম্প্রতি যে ঘটনাগুলো ঘটেছে তাতে শুধু স্থানীয়ভাবে যারা জড়িত তাদের হাতই নেই। এর সঙ্গে সম্পৃক্ত আন্তর্জাতিক ব্যবসা বাণিজ্য, ভূ-রাজনৈতিক অবস্থা। এই জায়গাগুলোতে উন্নতি করতে না পারলে এমন ঘটনা কিন্তু বারংবার ঘটতেই থাকবে। যে ঘটনাগুলো ঘটেছে এর সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের দাবি জানাচ্ছি।
 
কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। এর আগে সকাল ১০টায় একই দাবিতে মানববন্ধন করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডের সঞ্চালনায় প্রো-ভিসি অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়াও অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম, মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক শাহ্ আজম, অধ্যাপক শুভ্রা রাণী চন্দ প্রমুখ বক্তব্য দেন। কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম

English HighlightsREAD MORE »