কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় ভালো করার উপায় 

ঢাকা, মঙ্গলবার   ৩০ নভেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৮,   ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় ভালো করার উপায় 

শিক্ষাঙ্গন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:২৪ ১৬ অক্টোবর ২০২১  

শুধু জীববিজ্ঞান দিয়েই ভর্তির সুযোগ পাওয়ার প্রায় ৫০ শতাংশ মার্কস উঠানো সম্ভব

শুধু জীববিজ্ঞান দিয়েই ভর্তির সুযোগ পাওয়ার প্রায় ৫০ শতাংশ মার্কস উঠানো সম্ভব

যে কোনো ভর্তি পরীক্ষায় ভালো করার একটা অন্যতম শর্ত হচ্ছে বিগত সালের প্রশ্নগুলো খুব ভালো করে পড়ে ফেলা। যারা এখনো বিগত সালের প্রশ্নগুলো পড়েননি তারা কমপক্ষে পাঁচ বছরের সব কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত বছরের প্রশ্ন পড়ে ফেলেন। কারণ, ৪০ শতাংশের বেশি রিপিট হয়। আর বিগত সালের প্রশ্ন পড়লে আপনি নিজেই বুজতে পারবেন কোন কোন বিষয় থেকে বেশি প্রশ্ন আসে, প্রশ্নের ধরন কেমন হয় এবং কোনগুলো গুরুত্বপূর্ণ। মনে রাখবেন, গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো সবার জন্যই গুরুত্বপূর্ণ এবং ঘুরেফিরে সেগুলো থেকেই বার বার প্রশ্ন আসে।

যেহেতু এইবার বোটানি এবং জুলজিতে ৩০ মার্কস, তাই সবার উচিৎ হবে জীববিজ্ঞানটা খুব ভালো করে পড়ে ফেলা। যারা মেডিক্যালের প্রস্তুতি নিয়েছিলে, তাদের জন্য অনেকটা সহজ হয়ে গেছে। যা পড়েছেন, ওগুলোই ভালো করে বার বার পড়েন। এই মুহূর্তে নতুন ও বাড়তি ইনফরমেশন পড়তে পারেন।

শুধু জীববিজ্ঞান দিয়েই ভর্তির সুযোগ পাওয়ার প্রায় ৫০ শতাংশ মার্কস উঠানো সম্ভব। কোন টপিকস বেশি গুরুত্ব দিয়ে পড়বেন, তা বিগত সালের সব কৃষির প্রশ্ন পড়লে ধারণা হয়ে যাবে। ঠিকমতো পড়ালেখা করলে জীববিজ্ঞানে ২৮ পর্যন্ত পাওয়া সম্ভব। তাই ভালো করার জন্য অবশ্যই জীববিজ্ঞানকে টার্গেটে রাখতে হবে।

পরীক্ষায় রসায়নে থিওরি টাইপ প্রশ্ন বেশি আসে, ম্যাথ টাইপ খুবই কম আসে। তাই সব কৃষিতে বিগত সালে যে টপিকস থেকে প্রশ্ন আসছে, ওই টপিকস ভালো করে পড়ে ফেলেন। কৃষিতে জৈব যৌগ থেকে বেশি প্রশ্ন আসে না, ২-৩ টা সর্বোচ্চ। প্রথম পত্রের ২য়, ৩য়, ৪র্থ এবং ৫ম এবং দ্বিতীয় পত্রের ১ম, ৩য়, ৪র্থ অধ্যায় থেকে বেশি প্রশ্ন আসে। বিগত সালের প্রশ্ন ও ওই টপিকস ভালো করে পড়লে খুব সহজেই ২০-এ ১৮ উঠাতে পারবেন।

যারা মেডিক্যালের প্রস্তুতি নিয়েছিলেন, তাদের অনেকেই পদার্থবিজ্ঞানের ম্যাথগুলো সমাধান করতে গিয়ে সমস্যায় পড়েছেন। কৃষির পদার্থবিজ্ঞানে প্রায় সবই ম্যাথ আসবে, থিওরি ২-৩টা আসবে। তাই এই শেষ মুহূর্তে বিগত সালে আসা ম্যাথগুলো এবং ওই বিষয়ের ম্যাথগুলো বার বার অনুশীলন করেন। পদার্থবিজ্ঞানের সব সূত্র মুখস্থ রাখতে পারলে এবং সমানুপাতিক ব্যস্তনুপাতিক সম্পর্কগুলোতে ভালো ধারণা থাকলে ৬০ শতাংশ প্রশ্নের উত্তর করা সম্ভব। 

বিগত সালগুলোতে কিছু কিছু কৃষিতে ক্যালকুলেটর ব্যবহার ছিল। তাই প্রশ্নও তেমন হতো। কিন্তু এখন যেহেতু ক্যালকুলেটর ব্যবহার নেই, তাই যেগুলো করতে ক্যালকুলেটর আবশ্যক, ওগুলো স্কিপ করে যান। তবে বিগত প্রশ্নের টাইপগুলোতে মান পরিবর্তন করে দিলে ক্যালকুলেটর ছাড়া সম্ভাব্য এমন টপিকস অবশ্যই অনুশীলন করে যেতে হবে। 

যারা মেডিক্যালের প্রস্তুতি নিয়েছিলেন, প্রায় সবারই বড় ভয়টা এখন ম্যাথ নিয়ে। ম্যাথ নিয়ে ভয়ের কিছুই নেই। বিগত সালের প্রশ্ন থেকে এমনি ১০ শতাংশ কমন পাবেন। প্রশ্নগুলো প্র্যাকটিস করতে পারেন। ম্যাথে বেশি প্রশ্ন আসে অন্তরীকরণ, যোগজীকরণ, সরলরেখা, জটিল সংখ্যা, সম্ভাব্যতা, বিন্যাস সমাবেশ, বৃত্ত ও ফাংশন থেকে। যোগজীকরণের ক্ষেত্রে বিগত সালের প্রশ্ন উত্তরসহ মুখস্ত করে ফেলেন, কারণ ঘুরেফিরে সেগুলোই বার বার আসে। 

ইংলিশে সব প্রশ্ন হবে বেসিক গ্রামার থেকে। প্রস্তুতি না নিলেও ৬-১০ শ্রেণীর  বেসিক ধারণা থেকে ৪-৫টা উত্তর করা সম্ভব। বেসিক গ্রামারের নিয়মগুলো দেখে গেলে সহজেই উত্তর করতে পারবেন।

ইংরেজিতে যে যে বিষয় থেকে প্রশ্ন বেশি হয়

Right form of verb(১-২টা), sentence (১-২টা), Preposition (১টা),Narration(১টা), Voice change(১টা), Spelling(১টা), Subject verb agreement(১টা), Synonym +antonym(১টা), Proverb (১টা), Translation (১টা)

প্রতিটি বিষয়ের ব্যতিক্রম অধ্যায়গুলো অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এগুলো ভালো করে পড়লে খুব সহজে ৯ মার্কস পাওয়া যাবে। টপিকগুলো একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির ব্যাকরণ বই থেকে পড়লে ভালো হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম