শিল্পকলা একাডেমির সম্মানসূচক পুরস্কার পেলেন রাবি শিক্ষার্থী জয়

ঢাকা, সোমবার   ২৫ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১০ ১৪২৮,   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিল্পকলা একাডেমির সম্মানসূচক পুরস্কার পেলেন রাবি শিক্ষার্থী জয়

রাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪৬ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১  

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) শিল্পকলা একাডেমির পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে এই পুরস্কার তুলে দেয়া হয়

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) শিল্পকলা একাডেমির পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে এই পুরস্কার তুলে দেয়া হয়

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির ২৪তম জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনীতে ভাষা শহীদ গাজীউল হক সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তানভীর আহমেদ জয়। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের মৃৎশিল্প ও ভাস্কর্য বিভাগের ২০১৫-১৬ সেশনের শিক্ষার্থী।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) শিল্পকলা একাডেমির পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে এই পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। যার প্রাইজ মূল্য ৫০ হাজার টাকা।

জানা যায়, গত ৯ জুন শিল্পকলা একাডেমির ২৪তম জাতীয় চারুকলা প্রদশর্নীর জন্য জয়ের শিল্পকর্ম ‘অস্তিত্বের লড়াই’ নির্বাচকমণ্ডলী কর্তৃক মনোনিত হয়। যা প্রদর্শনীতে স্থান পায়। পরে গত ২৯ জুন প্রদর্শনীর উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে শিল্পকর্মটিতে ভাষা শহীদ গাজীউল হক সম্মাননা পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়।

অনুভূতি প্রকাশ করে জয় বলেন, দেশের জ্ঞানী-গুণী শিল্পীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারাটাই বড় অর্জন। আর সেই প্রতিযোগিতায় সম্মাননা পুরস্কার পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত। এই পুরস্কার আগামীতে শিল্পচর্চায় আমাকে এবং আমার ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে শিল্পচর্চায় অনুপ্রেরণা যোগাবে। করোনা মহামারিতে শিল্পকলা একাডেমিকে বড় একটি প্রদর্শনীর আয়োজন করায় ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমার পরিবার, শিক্ষকমহোদয়, বন্ধুমহল এবং শুভাকাংখী সকলের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা, যারা আমাকে সর্বদা অনুপ্রাণিত করেছেন।

শিল্পকর্ম অস্তিত্বের লড়াই সম্পর্কে জানতে চাইলে জয় ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, শ্রেণি বৈষম্যের এই সমাজে টিকে থাকার লড়াইটা নিত্যদিনের। সমাজের ধনীরা আরো ধনী হতে চায়। আর গরীবরা না খেয়ে রাস্তায় পড়ে থাকে। কারো বিলাসী জীবন আর কারো রাত কাটে খোলা আকাশের নিচে। দু-মুঠো অন্নের জন্য কিছু মানুষকে প্রতিনিয়ত লড়াই করে যেতে হয়। কিন্তু সুন্দর একটা পৃথিবী গড়তে হলে এই বৈষম্য কোনো দিনও কাম্য নয়। সব উচু নিচুর ভেদাভেদ ভেঙে দিয়ে সুন্দর আগামীর জন্য শ্রেণিহীন সমাজ গড়ার বিকল্প নেই। এমন আহ্বান জানিয়ে শিল্পকর্মটি তৈরি করেছিলাম। যার জন্য আজকে সম্মানিত হলাম। 

উল্লেখ্য, গত ২৯ জুন ঢাকার শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত ২৪তম জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনী ২০২১-এর উদ্ধোধন করা হয়। পরে গত ২৫ সেপ্টেম্বর সমাপনী অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের ৭৮৬ জন শিল্পীর সহস্রাধিক শিল্পকর্মের আবেদন জমা পড়ে। সেখান থেকে ৩২৩ জন শিল্পীর ৩৪৭টি শিল্পকর্ম নির্বাচন করা হয়। এ বছর চারুকলা প্রদর্শনীর প্রতিটি মাধ্যমে একটি করে মোট ১১টি শ্রেষ্ঠ পুরস্কার ছাড়াও ৫টি সম্মানসূচক পুরস্কার দেয়া হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম