নিয়োগপ্রাপ্তদের বাধার মুখে এবার স্থগিত রাবির সিন্ডিকেট সভা

ঢাকা, শনিবার   ২৪ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ৯ ১৪২৮,   ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

নিয়োগপ্রাপ্তদের বাধার মুখে এবার স্থগিত রাবির সিন্ডিকেট সভা

রাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২৩:১৪ ২২ জুন ২০২১   আপডেট: ২৩:১৭ ২২ জুন ২০২১

পদায়ন পেতে ভিসি ভবনের সামনে রাস্তার উপর শুয়ে পড়েন নিয়োগপ্রাপ্তরা। 

পদায়ন পেতে ভিসি ভবনের সামনে রাস্তার উপর শুয়ে পড়েন নিয়োগপ্রাপ্তরা। 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) অবৈধ নিয়োগপ্রাপ্তদের বাধার মুখে এবার স্থগিত করা হয়েছে সিন্ডিকেট সভা। এর আগে গত ১৯ জুন ফাইন্যান্স কমিটির সভা স্থগিত করা হয়।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় সাংবাদিকদের ডেকে সিন্ডিকেট স্থগিত করেন রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত ভিসি অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা।

পূর্ব ঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ সন্ধ্যা ৭টায় ভিসির বাসভবনে সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো। এর আগেই ভিসি ভবনের সামনে অবস্থান নেয় নিয়োগপ্রাপ্তরা। বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরসহ সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ ভিসি ভবনে প্রবেশের সময় বাধা প্রদান করেন চাকরিপ্রাপ্ত প্রায় ৫০-৬০ জন। এসময় পদায়ন পেতে ভিসি ভবনের সামনে রাস্তার উপর শুয়ে পড়েন নিয়োগপ্রাপ্তরা। 

নিয়োগপ্রাপ্ত ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আতিকুর রহমান সুমন বলেন, গত ৬ মে সাবেক ভিসি এম আবদুস সোবহান আমাদের নিয়োগ দিয়েছেন। এখনও আমরা কর্মস্থলে যোগদান করতে পারিনি। এবিষয়ে একটা সমাধানের জন্য তখন থেকে আমরা দাবি জানিয়ে আসছি, আন্দোলন করছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত আমাদের বিষয়ে চারভাগের একভাগ কাজও করেনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

তিনি আরো বলেন, গতকাল সোমবার প্রশাসনের সঙ্গে আমাদের মিটিং হয়েছে। মিটিংয়ে আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছে যে আমাদের বিষয়ে সমাধান করবেন। কিন্তু এরপরেই প্রশাসন থেকে আমাদের পদায়নের বিরোধিতা করা হয়েছে। আমরা জানতে পারছি এই সিন্ডিকেটে আমাদের নিয়োগ সম্পূর্ণভাবে বাতিলের বিষয়ে কথা হবে। তাই আমরা ভিসি ভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছি।

ভারপ্রাপ্ত ভিসি অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা বলেন, গতকাল চাকরিপ্রাপ্তদের সঙ্গে আমাদের একটি মিটিং হয়েছে। ওই মিটিংয়ে তারা আমাদেরকে বলে ছিলো সিন্ডিকেট সভাতে বাধা দেবে না, তবে এফসি করতে দিবে না। তাদের আশ্বাসে আজ সন্ধ্যা ৭টায় সিন্ডিকেট সভা আহ্বান করা হয়। কিন্তু সিন্ডিকেট করতে গেলে তারা বাধা প্রদান করে এবং প্রক্টরসহ সিন্ডিকেট সদস্যদের সঙ্গে কথা কাটাকাটিও হয়। তাই আজকের সিন্ডিকেট সভা স্থগিত করেছি।

অবৈধ চাকরিপ্রাপ্তদের পদায়নের বিষয়ে ভিসি বলেন, এবিষয়ে আমার একার পক্ষে সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা নেই। তাদের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ত্রুটি আছে, বিষয়টি মন্ত্রণালয় দেখছেন। এ অবস্থায় মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা ছাড়া তাদের যোগদান  করানোর ক্ষমতা আমার নেই।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ১৯ জুন ফাইন্যান্স কমিটির সভায় বাধা প্রদান করে নিয়োগপ্রাপ্তরা। পরে সেটা স্থগিত করা হয় এবং সেই সঙ্গে সিন্ডিকেট সভা স্থগিত করার দাবি জানায় তারা। পরে গতকাল আলোচনায় তারা আশ্বাস প্রদান করেন সিন্ডিকেট সভা করতে পারবে। তাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত ফাইন্যান্স কমিটির সভা করতে পারবে না। তাই পূর্ব ঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ সিন্ডিকেট সভা শুরু হওয়ার আগেই আবার তারা বাধা প্রদান করে। তাদের ধারণা আজ সিন্ডিকেট হলে তাদের পুরো নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম