সরকারের কৃষি যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্পে সহযোগিতা করছে বাকৃবি

ঢাকা, বুধবার   ১৬ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৪ ১৪২৮,   ০৪ জ্বিলকদ ১৪৪২

সরকারের কৃষি যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্পে সহযোগিতা করছে বাকৃবি

বাকৃবি প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৪৯ ৬ মে ২০২১   আপডেট: ২২:৫৪ ৬ মে ২০২১

সরকারের ‘সমন্বিত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ’ প্রকল্প বাস্তবায়নে সহযোগিতা করছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি)

সরকারের ‘সমন্বিত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ’ প্রকল্প বাস্তবায়নে সহযোগিতা করছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি)

সরকারের ‘সমন্বিত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ’ প্রকল্প বাস্তবায়নে সহযোগিতা করছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি)। এরই অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে গবেষণা মাঠের ধান ক্ষেতে শস্য মাড়াইয়ের বিভিন্ন যন্ত্রের গুণগত মান ও দক্ষতা যাচাই করা হয়েছে। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. এ কে এম জাকির হোসেন, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মহির উদ্দিন, বাউরেসের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. আবু হাদী নূর আলী খান। 

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রকল্পের কারিগরি কমিটির আহবায়ক ড. মো. আইয়ুব, কারিগরি কমিটির সদস্য অধ্যাপক ড. চয়ন কুমার সাহা, ড. মো. আনোয়ার হোসেন, মো. আকতারুল ইসলাম ও প্রকল্পের উপ পরিচালক আলতাফুন নাহার।

কৃষি যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্পের কারিগরি কমিটির সদস্য বিশবিদ্যালয়ের কৃষি শক্তি এবং যন্ত্র বিভাগের অধ্যাপক ড. চয়ন কুমার সাহা বলেন, কৃষিকে আধুনিকায়নে বিদেশের বিভিন্ন যন্ত্র এ প্রকল্পের অধীনে মাঠ পর্যায়ে কাজ করবে। শস্য মাড়াই, শুকানোসহ নানা প্রকারের প্রায় ৪৬টি কোম্পানির যন্ত্র নিয়ে আমরা কাজ করছি। এর মধ্যে যে যন্ত্রগুলোর দক্ষতা বেশি হবে সেগুলোকে বাছাই করে কৃষক পর্যায়ে পৌঁছে দেয়া হবে। 

প্রকল্পের উপ পরিচালক আলতাফুন নাহার বলেন, বাকৃবির গবেষণা মাঠে ১০টি কোম্পানির আলাদা কম্বাইন হারভেস্টর, ১০টি রিপার মেশিন (শস্য কর্তন যন্ত্র), ১০টি থ্রেসার মেশিন (শস্য মাড়াই যন্ত্র) এবং ৫ ড্রায়ার মেশিনের (শস্য শুকানোর যন্ত্র) দক্ষতা যাচাই করার জন্য কাজ চলছে। যন্ত্রগুলোর দক্ষতার উপর ভিত্তি করে বাছাই করে কৃষকের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম