চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের তিন দফা

ঢাকা, রোববার   ১৮ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৬ ১৪২৮,   ০৫ রমজান ১৪৪২

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের তিন দফা

চবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২৩:২৪ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে এক প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেয় শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে এক প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেয় শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঘোষণা অনুযায়ী দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস শুরু হবে ২৪ মে। আবাসিক হল খুলবে ১৭ মে। তাই স্থগিত করা হয়েছে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান পরীক্ষাও। চবি প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্তের পর বিপাকে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। 

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে এক প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেয় শিক্ষার্থীরা। পরে তারা প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। তারা প্রশ্ন তুলছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তই যদি মানতে হয় তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়কে স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান বলা হয় কেন?

যে তিন দফা দাবিতে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছেন- ১. চবির চলমান পরীক্ষা স্থগিত না করা, ২. পরীক্ষার্থীদের জন্য আবাসিক হল খোলা ৩. শাটল ট্রেন চালু না হওয়া পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের জন্য বাস সার্ভিস চালু করা। 

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের একজন বলেন, আটকে থাকা পরীক্ষাগুলো নির্বিঘ্নে দেয়ার জন্য শিক্ষার্থীরা দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে এসেছে। প্রশাসন তা মানেনি, উল্টো এখন পরীক্ষা স্থগিতের চিন্তা করছে। দাবি আদায় করে নেয়ার জন্য আমরা আরো জোরালো কর্মসূচি পালন করব। এখন থেকে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

অন্যদিকে দুই বছর পর প্রথম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী আল আমিন সিফাত ফেইসবুকে লিখেন, আমি অঙ্গিকারনামা দিয়েছিলাম হল, খাওয়া দাওয়া, এবং আমি অসুস্থ হলে এর দায়ভার আমার! তবুও আমার পরীক্ষা বন্ধ কেনো? জাবাব চাই চবি প্রশাসনের কাছে? 

রমজান হোসেন নামে আরেজন শিক্ষার্থী লিখেছেন, শিক্ষামন্ত্রী, খুলনা থেকে আসা যাওয়ার পরিবহন খরচ ও এক মাসের রুম ভাড়ার টাকা দয়া করে দিয়ে দিন। পরীক্ষার জন্য ২০ ঘণ্টা জার্নি করে ক্যাম্পাসে আসা, বাসা ভাড়া নেয়া আবার পরীক্ষা না দিয়ে কষ্ট করে বাড়ি ফিরে যাওয়া এগুলো বুঝার মত ক্ষমতা আপনাদের হয়নি!

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভুইয়া বলেন, আজকে সব পরীক্ষা স্থগিত আছে, পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আমরা আলাপ করছি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম