বঙ্গবন্ধু এ্যাথলেটিকসে রাবির দুই শিক্ষার্থীর চমক

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৪ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ২০ ১৪২৭,   ১৯ রজব ১৪৪২

বঙ্গবন্ধু এ্যাথলেটিকসে রাবির দুই শিক্ষার্থীর চমক

রাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৩৬ ১৮ জানুয়ারি ২০২১  

বঙ্গবন্ধু ৪৪তম জাতীয় এ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় স্বর্ণপদক জয় করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী শিরিন আক্তার ও মাহফুজ হাসান

বঙ্গবন্ধু ৪৪তম জাতীয় এ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় স্বর্ণপদক জয় করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী শিরিন আক্তার ও মাহফুজ হাসান

বঙ্গবন্ধু ৪৪তম জাতীয় এ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় স্বর্ণপদক জয় করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী শিরিন আক্তার ও মাহফুজ হাসান। দ্রুততম মানবী হিসেবে টানা এগারোবার ১০০ মিটারের স্প্রিন্ট এবং চতুর্থবারের মতো মাহফুজ হাসান হ্যামার থ্রোতে এ গৌরব অর্জন করেছেন। 

১০০মিটার নারী এককে দ্রুততম মানবী শিরিন আক্তার সময় নিয়েছে ১১.৮০ সেকেন্ড। জাতীয় এ্যাথলেটিকস ও জাতীয় সামার এ্যাথলেটিকস মিলে টানা ১১বার দ্রুততম মানবীর খেতাব পেলেন তিনি। দেশের দ্রুততম মানবীর খেতাব ধরে রাখার পর শ্রেষ্ঠত্ব নিজের কব্জায় রেখেছেন ১০০ মিটার রিলে, ২০০ মিটার স্প্রিন্টে। চারটি ইভেন্টে অংশ নিয়ে চারটিতে স্বর্ণপদক জিতেছেন তিনি।

অন্যদিকে হ্যামার থ্রোতে ৫০ দশমিক ৮১ মিটারে থ্রো করে সবাইকে পেছনে ফেলে টানা চতুর্থবারের মতো স্বর্ণপদক তুলে নেন মাহফুজ হাসান। এর আগে রাবির হয়ে জাতীয় সামার এ্যাথলেটিকসে হ্যামার থ্রো ইভেন্টে টানা দুইবার ব্রোঞ্জ জয় করেছিলেন তিনি। 

শিরিন আক্তার ও মাহফুজ হাসান  দুজনেই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী। উভয়ই এবার বঙ্গবন্ধু এ্যাথলেটিকসে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর হয়ে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন।

এদিকে তাদের এমন সফলতায় অভিনন্দন জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান।

অভিনন্দন বার্তায় উপাচার্য বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এই দুই শিক্ষার্থীর অর্জন সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। তাদের এই অর্জন শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়, বাংলাদেশের গর্ব। তারা দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্বের বুকে তাদের সফলতার এভাবেই অক্ষুণ্ন রাখুক এমন প্রত্যশা করে তাদের উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করেন তিনি। এছাড়া তাদের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান অ্যাথলেটসরাও এভাবেই তাদের সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ এ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী এ প্রতিযোগিতায় ৩৪টি জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা, ৪টি ইউনির্ভাসিটি, ১টি শিক্ষাবোর্ড, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বাংলাদেশ নৌবাহিনী, বাংলাদেশ বিমানবাহিনী, বাংলাদেশ জেল ও বাংলাদেশ আনসার ভিডিপিসহ মোট ৪৫টি সংস্থার ৪৩৮জন এ্যাথলেট এবং ৬৫জন ম্যানেজার ও কোচ অংশগ্রহণ করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম