হাবিপ্রবির কৃষি বনায়ন বিভাগের ভাইভা সম্পন্ন

ঢাকা, শনিবার   ২৪ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৯ ১৪২৭,   ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

হাবিপ্রবির কৃষি বনায়ন বিভাগের ভাইভা সম্পন্ন

হাবিপ্রবি প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৪৫ ১ অক্টোবর ২০২০  

আলোচনায় অংশগ্রহণকারীরা

আলোচনায় অংশগ্রহণকারীরা

প্রথমবারের মতো অনলাইনে মাস্টার্সের থিসিস প্রেজেন্টেশন ও ভাইভা সম্পন্ন করেছে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ( হাবিপ্রবি ) কৃষি অনুষদের অন্তর্গত কৃষি বনায়ন ও পরিবেশ বিভাগ।

বুধবার অনলাইন থিসিস প্রেজেন্টেশন ও ভাইভা কার্যক্রমের সমাপ্তি ঘটে। প্রথম দিন অনলাইনে যুক্ত থেকে মাস্টার্স থিসিস ডিফেন্স কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন পোস্ট গ্র‍্যাজুয়েট অ্যান্ড স্টাডিজ অনুষদের ডীন প্রফেসর ড.ফাহিমা খানম।

উদ্বোধন পূর্ব সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ড.ফাহিমা খানম বলেন, এগ্রোফরেস্ট্রি বিভাগকে এমন উদ্যোগ নেয়ার জন্য ধন্যবাদ। আশাকরি তাদের এই অনলাইন কার্যক্রম সফলভাবে শেষ হবে। যারা ডিফেন্স দিচ্ছে তাদের সবার জন্য শুভ কামনা রইল। সবাই ভালো থাকুক, সুস্থ থাকুক এই প্রত্যাশা করি। 

এ বিষয়ে কৃষিবনায়ন ও পরিবেশ বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মো. শোয়াইবুর রহমান বলেন,  দুই দিনব্যাপী জুম এপের মাধ্যমে মাস্টার্স ২০১৮ ও ২০১৯ শিক্ষাবর্ষের ভর্তিকৃত ১৩ জন শিক্ষার্থীর থিসিস ডিফেন্স ও ভাইভা পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। কিছুটা সমস্যা হলেও সর্বোপরি সব কিছুই অনেক সুন্দরভাবে শেষ হয়েছে। যদিও সম্পূর্ণভাবে এটি একটি নতুন অভিজ্ঞতা তথাপি বেশ ভালোই লেগেছে।

তিনি আরো বলেন,  সবাইকে আমরা ১০ মিনিট সময় বেঁধে দিয়েছিলাম। এর সময়ের মধ্যে তাকে প্রেজেন্টেশন শেষ করতে হবে। এরপর ৩ মিনিট প্রশ্নোত্তর পর্ব ছিলো। প্রেজেন্টেশন শেষ হয়ে গেলে একজন একজন করে তাদের পুনরায় জুম এপে ভাইভার জন্য ডাকা হয়েছিলো। করোনা যদিও অনেক ক্ষতি করেছে তবুও এই করোনার কারণে আমরা অনেক কিছু নতুনভাবে শিখেছি ও জেনেছি। 

আফসান সরণি অনলাইন প্রেজেন্টেশনের অনুভূতি জানিয়ে বলেন, মহামারির সময় আমরা ডিফেন্সের কথা চিন্তাও করতে পারিনি কিন্তু ইন্টারনেটের সুবাদে এবং আমাদের স্যারদের অক্লান্ত পরিশ্রম এবং সহযোগিতার জন্য খুব সহজেই আমরা ডিফেন্স শেষ করেছি। সেশন জট এড়ানোর জন্য অনান্য বিভাগেরও এরুপ উদ্যোগ গ্রহণ করা উচিত বলে মনে করি।

অনলাইন এই কার্যক্রমে বহিঃপরীক্ষক হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর থেকে যুক্ত ছিলেন প্রফেসর ড.মঈন উদ্দিন, আন্তঃপরীক্ষক হিসেবে ছিলেন ফসল শরীরতত্ত্ব ও পবিবেশ বিভাগের প্রফেসর ড. আবু খায়ের মো. মুক্তাদিরুল বারী চৌধুরী এবং প্রফেসর ড. মো. সফিকুল বারী অংশ গ্রহণ করেন। এছাড়া বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থী যুক্ত ছিলেন।

পক্ষান্তরে, অন্যান্য অনুষদের অন্তর্গত বিভাগগুলোর সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা না নিতে পারার কারণে পরবর্তী সেমিস্টারের ক্লাস শুরু হচ্ছে না। ফলে সেশনজটের পাশাপাশি দিনে দিনে শিক্ষার্থীদের হতাশা বাড়ছে।

অনলাইনে থিসিস প্রেজেন্টেশনের জন্য বিভাগের শিক্ষকরা গত একমাস ধরে ছাত্র-ছাত্রীদের অনলাইনে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন এই প্রশিক্ষণে বিভাগের অভ্যন্তরীণ শিক্ষকদের পাশাপাশি থাইল্যান্ড থেকেও বিভাগের শিক্ষক সহযোগী অধ্যাপক হাফিজ আল আমিন ও সদ্য চীন ফেরত সহকারী অধ্যাপক ড. আবু হানিফ ও আলোচনায় অংশগ্রহণ করে থিসিস সেমিনারকে প্রাণবন্ত করেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ