প্রস্তুত এইচএসসির প্রশ্ন ও উত্তরপত্র, সিদ্ধান্ত নেবে মন্ত্রণালয়

ঢাকা, শুক্রবার   ৩০ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৫ ১৪২৭,   ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

প্রস্তুত এইচএসসির প্রশ্ন ও উত্তরপত্র, সিদ্ধান্ত নেবে মন্ত্রণালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৪৭ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০  

এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর প্রস্তুতি নেবে শিক্ষা বোর্ড। ছবি: সংগৃহীত

এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর প্রস্তুতি নেবে শিক্ষা বোর্ড। ছবি: সংগৃহীত

উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষা স্বাস্থ্যবিধি মেনে আয়োজনের সব প্রস্তুতি চূড়ান্ত করবে শিক্ষা বোর্ডগুলো। এরইমধ্যে পরীক্ষা নেয়ার জন্য প্রশ্ন ও উত্তরপত্র প্রস্তুত করা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে পরীক্ষা শুরুর সিদ্ধান্তের পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে প্রস্তুতি শুরু করতে চান শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানরা।

বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটায় ঢাকা বোর্ডের সম্মেলন কক্ষে ১১টি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানরা বৈঠকে বসেন। বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়। এ সভায় সভাপতিত্ব করেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটির চেয়ারম্যান ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক জিয়াউল হক।

শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধাপক মো. আব্দুল আলীম বলেন, এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা নেয়ার জন্য প্রশ্ন ও উত্তরপত্র প্রস্তুত রয়েছে। কবে পরীক্ষা নেয়া হবে সরকার সিদ্ধান্ত ঘোষণা দিলে আমরা পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে সব প্রস্তুতি শেষ করতে পারবো।

তিনি বলেন, পাবলিক পরীক্ষায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে এক বেঞ্চে একজন বা দুজন করে পরীক্ষার্থী বসানো হবে। পরীক্ষা কেন্দ্র স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে এ পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। সব শিক্ষা বোর্ডগুলোকে পরীক্ষা সংক্রান্ত প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে।

এইচএসসি পরীক্ষা কবে হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, এমনটা উল্লেখ করে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক জিয়াউল হক বলেন, এটা আমাদের নরসাল বৈঠক ছিল। কে বলেছে এ বৈঠকে পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করবো? আমরা এখানে পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করবো না। এখতিয়ারের বাইরের প্রশ্ন করলে আমরা বিব্রতকর অবস্থার মধ্যে পড়ি। পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা আমাদের এখতিয়ার না।

এদিকে অটো প্রমোশন নয়, স্ব-স্ব বিদ্যালয়ের মূল্যায়নের মাধ্যমে অষ্টম থেকে নবম শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের উত্তীর্ণ করা হবে বলে জানিয়েছেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটির চেয়ারম্যান ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক জিয়াউল হক।

তিনি বলেন, অটো প্রমোশন বলতে আসলে কিছু নেই। সবকিছু মূল্যায়নের মাধ্যমেই হবে। জেএসসি পরীক্ষা বাতিল করা হলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো নিজস্ব প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের মূল্যায়ন করবে। মূল্যায়নের ক্ষেত্রে ১৫ মার্চ পর্যন্ত ক্লাস, সংসদ টিভির ক্লাস ও অনলাইনের ক্লাসকে প্রাধান্য দেয়া হবে। শিক্ষার্থীদের সব শিক্ষকই চিনেন। প্রত্যেক শিক্ষার্থীর মেধা মূল্যায়ন করেই অন্য ক্লাসে উত্তীর্ণ করবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে